তৌহিদ ইসলাম, ফরিদপুর-

ফরিদপুরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে নবম শ্রেনীর এক ছাত্রীর গনধর্ষনের শিকারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে ফরিদপুর শহরের আলীপুর এলাকায়।

মেয়েটি হিতৈষী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর (১৭) ছাত্রী। এ ঘটনায় সাব্বির ও উজ্জল নামের দুই ধর্ষককে আটক করেছে র‌্যাব-৮ ফরিদপুর।

ধর্ষিতার ছোট বোন সিমা আক্তার জানায়, আমার মাতা কোহিনুর বেগম আমি এবং আমার বোনকে নিয়ে আলীপুর গোরস্থানের সামনে একটি ভাড়া বাসায় থাকি। মা হোটেলে রান্নার কাজ করে অনেক কষ্ট করে আমাদের পড়াশুনা চালায়।

স্থানীয় অপু নামের এক বখাটে যুবক আমার বোনের সাথে প্রেমের অভিনয় করে গত রবিবার রাতে আলীপুর রেল লাইনের পাশে নিয়ে তার পরিচিত ৭/৮ জন বন্ধু মিলে আমার বোনের উপর নির্যাতন করে। পরবর্তিতে আমার বোন বেশী অসুস্থ্য হয়ে পরলে মধ্যরাতে তাকে তারা (ধর্ষকরা) বাসায় রেখে পালিয়ে যায়। আমার মা আমার বোনকে মারাতœক আহতবস্থায় প্রথমে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানের চিকিৎসকরা তাকে ফরিদপুর ট্রমা সেন্টারের ওয়ান ষ্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে প্রেরণ করে।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, মেয়েটিকে গনধর্ষনের অভিযোগে ভর্তি হয়েছে। আমরা তার শারিরিক পরীক্ষার জন্য ফরেনসিক টেষ্টের জন্য আলামত সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট বিভাগে পাঠিয়েছি। সেই রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের অধিনায়ক মো. রইচউদ্দিন জানান, গণধর্ষনের ঘটনার বিষয়টি  আমরা তদন্ত করছি। ঘটনার সাথে জড়িত দুই যুবককে সোমবার বিকালে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলো ফরিদপুর শহরের আলীপুর এলাকার বাসিন্দা সাব্বির হোসেন (১৯) এবং উজ্জল সিকদার (২৬) ।

ফরিদপুর কোতোয়ালী থানার ওসি মো. নাজিমউদ্দিন এ বিষয়ে জানান, তিনি  ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে চিকিৎসাধিন মেয়েটির ব্যাপারে খোজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন ।

Share Button