মোঃ আব্দুর রউফ,ধামরাই(ঢাকা) থেকে- ঢাকার ধামরাইয়ে ডাকাতির প্রস্ততিকালে মঙ্গলবার রাতে চার আন্তঃজেলা ডাকাতকে আটক করেছে ধামরাই থানা পুলিশ। আটক কৃতরা হল উপজেলার সানোড়া ্ইউনিয়নের ধলকুন্ড গ্রামের জানেআলমের ছেলেও স্বরণ কালের ত্রাস টাইগার আলামীন (২৭),একই গ্রামের জাহাঙ্গীরের ছেলেআলামীন (১৮),মহিশাষী গ্রামের হাছেন আলীর ছেলে মিলন (২০) ও আবদুল মালেকের ছেলে সুমন (২২)। জানে আলমের ছেলে আলামীনের আটকের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে এলাকাবাসী। তাদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি ও করেছেন তারা।

পুলিশ জানায়, রবিবার রাত দুইটার দিকে কালামপুর-সাটুরিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের  নান্দেশ্বরী এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়ে আলামীন,মিলন, সুমন ও আলামীন নামের চারজনকে আটক করে। এসময় তাদের সাথে থাকা ধারালো অস্ত্রের মধ্যে চাপাতি,কাটার মেশিন,ও বড় ধরনের ছোড়া উদ্ধার করা হয়।

কাওয়ালীপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (পরিদর্শক)শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান,মঙ্গলবার রাতে কালামপুর-সাটুরিয়া আঞ্চলিক সড়কে ডাকাতির প্রস্তুতি কালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চার ডাকাতকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ৭দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করে আটক ডাকাতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়,আল-আমীনের সন্ত্রাসী কার্যক্রমে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রতিনিয়ত দিন-দুপুরে মহিশাষী-কুশুরা সড়কে যদি কোন ব্যক্তিকে একা পেত তখনই আলামীন তাকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে টাকা পয়সা,মোবাইলসহ সব ছিনিয়ে নিত। এছাড়া মহিশাষী মোহাম্মদীয়া গার্ডেনে আগত অনেক দর্শনার্থী ওই আলামীনের সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। দর্শনার্থীদের কাছ থেকে অযথা ঝামেলা বাধিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করতো। টাকা না দিলেই যাকে তাকে  মারধর করতো।

তার অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ। বিশেষ করে ধলকুন্ড গ্রামেরহিন্দু পরিবারের বসবাস। তাদের সব সময়ই নির্যাতন করে আসছে ওই আলামীন। এলাকায় মাদক ব্যবসা ও তার নিয়ন্ত্রনে চলে আসছে। এলাকায় এমন কোন অপকর্ম নাই যা তারদ্বারা সংগঠিত হয় না। এর কোন প্রতিবাদ করতে ও কেউ সাহস পায়না। প্রতিবাদ করলেই তাকে মারপিট করা হয়। এমন অনেক বিস্তর অভিযোগ রয়েছে আলামীনের বিরূদ্ধে। এলাকাবাসী আরোজানায়,গত সপ্তাহে উপজেলার ধল কুন্ডগ্রামের এক সংখ্যালঘ ুপরিবারে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এসময় ডাকাতরা ওই পরিবারের এক নারীকে ও ধর্ষনের চেষ্টা করে।এসব ঘটনা জিজ্ঞাসা বাদ করলে অনেক তথ্য উদঘাটন হবে তাদের কাছ থেকে।

 

Share Button