নিজস্ব প্রতিবেদক : কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার একটি সন্দেহজনক জঙ্গি আস্তানা থেকে নব্য জেএমবির বর্তমান আমিরের স্ত্রীসহ তিন নারীকে আটকের কথা জানিয়েছে পুলিশ। ভেড়ামারা উপজেলা শহরের ওই বাড়িটি থেকে সুইসাইড ভেস্টসহ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধারের কথাও জানিয়েছে পুলিশ। বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়েছে। ঝড়তোলা গুলশান হামলার প্রথম বার্ষিকীর দিন গতকাল শনিবার এই অভিযান শুরু হয়। আটক নারীদের মধ্যে গুলশান হামলা চালানো নব্য জেএমবির বর্তমান আমির আইয়ুব বাচ্চু ওরফে সজীবের স্ত্রী তিথি রয়েছেন বলে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম মেহেদী হাসান জানিয়েছেন। পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের উপকমিশনার মহিবুল ইসলাম বলেছেন, ওই বাড়িতে আইয়ুব বাচ্চুর যাতায়াত ছিল। নওগাঁ থেকে তার স্ত্রী ওই বাসায় উঠেছিল। টিনশেড বাড়িটি প্রায় দুই মাস আগে জঙ্গিরা ভাড়া নিয়েছিল বলে পুলিশ সুপার মেহেদী জানান। তিনি বলেন, কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের তথ্যের ভিত্তিতে গত শুক্রবার রাত ১২টার দিকে শহরের তালতলা মসজিদের পাশে নাসিমা খাতুনের মালিকানাধীন বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। রাত ৩টার দিকে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও জেলা পুলিশ যৌথভাবে অভিযান শুরু করে। পুলিশ সুপার মেহেদী বলেন, অভিযান চালানোর সময় এক নারী সুইসাইড ভেস্ট পরে পুলিশের উপর হামলা চালানোর চেষ্টা করেন। পুলিশ সেটা বিস্ফোরণের আগেই ধরে ফেলে। পরে আরও দুই নারীকে আটক করা হয়। তিনি বলেন, আটকদের মধ্যে নব্য জেএমবির আমির আইয়ুব বাচ্চু ওরফে সজিবের স্ত্রী তিথি ছাড়াও রয়েছেন সংগঠনের সেকেন্ড ইন কমান্ড আরমান আলীর স্ত্রী সুমাইয়া এবং ভেড়ামারার নগর দৌলতপুর গ্রামের রাজিকুল ওরফে রাশেদ ওরফে তালহার স্ত্রী টলী বেগম। সুমাইয়ার সঙ্গে তার শিশুসন্তানও রয়েছে। দুটি সুইসাইড ভেস্ট, একটি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও কিছু গানপাউডার উদ্ধারের কথা জানিয়ে পুলিশ সুপার মেহেদী বলেন, বাড়িতে আরও বিস্ফোরক থাকতে পারে। ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল এসে পৌঁছালে পরবর্তী অভিযান চালানো হবে। ওই বাড়ির আশপাশের বাড়ি থেকে সবাইকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। উপ-কমিশনার মহিবুল বলেন, ওই বাড়িতে এখন কোনো লোকজন নেই। বিভিন্ন ধরনের বিস্ফোরক রয়েছে। সেগুলো নিষ্ক্রিয় করতে ঢাকা থেকে বোম্ব ডিসপোজাল টিম রওনা করেছে। এছাড়া আফিয়া হাসান (৫ মাস) ও নোভা (৬) নামের দু’টি শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। ভেড়ামারা থানার ওসি নুর হোসেন খন্দকার জানান, আস্তানার ভেতরে অভিযান চালিয়ে দুই শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে। শিশু আফিয়া হাসান আটক তিথির মেয়ে এবং নোভা আক্তার টলি আরা’র মেয়ে। স্বামী ডিস লাইনের কাজ করে আর স্ত্রী বাড়িতে দর্জির কাজ করে বলে বাসা ভাড়া নেয় জঙ্গিরা। এ তথ্য জানিয়েছেন জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে পুলিশের ঘিরে রাখা বাড়িটির মালিক নাসিমা খাতুন। তিনি জানান, ২০১৬ সালের ১১ নভেম্বর এক মেয়েসহ আরমান ও টলি আরা নামের এক দম্পতি আসেন বাড়ি ভাড়া নেয়ার জন্য। তাদের বাড়ি ভেড়ামারা উপজেলার কুচিয়া মোড়া এলাকায়। তিনি আরো জানান, স্বামী ডিস লাইন ও স্ত্রী দর্জির কাজ করে এমন কথা বলে তারা আমাদের কাছ থেকে বাড়ি ভাড়া নেন। এ সময় তাদের পরিচয়সহ সব কাগজপত্র থানায় জমা দেওয়া হয়েছিলো।

Share Button