কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি:- গাজীপুরের কালীগঞ্জে নিজের আপন ১২ বছরের মেয়েকে তার বাবা বাদল মিয়া (৪৫) দ্বারা ধর্ষণ চেষ্ঠার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে ধর্ষণ চেষ্ঠার শিকার হওয়া মেয়ের মা বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা (নং ২০) দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে লম্পট বাদলকে গাজীপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বাদল নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার কাটাবাড়ীয়া এলাকার বড় মির্জাপুর গ্রামের ফালুমুদ্দিনের ছেলে। বেকার বাদল গত সাত মাস ধরে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান খাইরুল আলমের বাড়ীতে ভাড়া থাকত। স্ত্রী পলাশ উপজেলার বাগপাড়া এলাকার প্রাণ-আরএফএল কারখানায় কাজ করতেন।

মামলার বাদী জানান, বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে প্রতিদিনের মত ঘরে বাবা-মেয়েকে রেখে তিনি কাজে চলে যান। চলে যাওয়ার আনুমানিক ঘন্টাখানেক পর মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্ঠা করে। পরে মেয়ের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। তিনি আরো জানান, এর আগে একাধীকবার সে মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্ঠা করেছে কিন্তু লোকলজ্জার ভয়ে কিছুই বলেননি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই হাবীবুর রহমান জানান, এ ব্যাপারে নির্যাতনের শিকার হওয়া শিশুটির মা ও আসামীর স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্ঠার মামলা দায়ের করেছে। সেই মামলার প্রেক্ষিতে তাকে বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Share Button