রংপুর অফিম॥
রংপুরে বিভিন্ন কর্মসুচির মধ্যদিয়ে ৪৬ তম সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সেনানিবাসের সম্মেলন কক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ অঞ্চলের বীর মুক্তিযোদ্ধা, গণমান্য ব্যক্তি, সামরিক অসামরিক ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থী এবং সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। সশস্ত্র বাহিনী দিবসে অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মোঃ মাসুদ রাজ্জাক এনডিসি এফডব্লিউসি পিএসসি। তিনি বলেন “১৯৭১ সালের ২১শে নভেম্বর মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে সকল বাহিনী একতাবদ্ধভাবে অসীম সাহস বুকে নিয়ে আত্মত্যাগের দীক্ষায় দীক্ষিত হয়ে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। বলিষ্ঠ পদক্ষেপে সূর্য সন্তানরা অংশগ্রহণ করায় নতুন গতি আসে মুক্তিযুদ্ধে, ফলে ত্বরান্বিত হয় বিজয়। ২১ নভেম্বর একটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ দিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে সকল সামরিক, আধাসামরিক ও অসামরিক জনগণের সমন্বয়ে গঠিত বাহিনীর অদম্য মনোবল আর অসীম সাহসিকতাপূর্ণ সম্মিলিত আক্রমনের ফলে পাকবাহিনী দুর্বল হয়ে পড়ে”।
এছাড়াও তিনি মুক্তিযুদ্ধের মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ’ ৭১ এর সকল শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও তাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন ।
পরে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে কেক কাটা হয় ।এতে অংশনেন রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুখ মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন আজিজুল হক বীর প্রতীক।এরপর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারবর্গের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণ ও সম্বর্ধিত করা হয় ২৯৬ মুক্তিযোদ্ধাকে। এসময় অন্যান্যের  জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট সাফিয়া খানম,জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানসহ সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Share Button