দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আজ ১২ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পূর্বঘোষিত সমাবেশের অনুমতি না পাওয়ায় সরকারের প্রতি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে একইস্থানে ১৯ মার্চ ফের সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। একই দাবিতে আগামী ১৫ মার্চ চট্টগ্রাম, ১৯ মার্চ ঢাকা, ২৪ মার্চ বরিশাল এবং ৩১ মার্চ রাজশাহীতে সমাবেশ করবে বিএনপি।
সোমবার বেলা ১১টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ ঘোষণা দেন।
তিনি বলেন, গণতন্ত্র মানে বিক্ষোভ-সমালোচনা। গণতন্ত্র মানে গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করে ক্ষমতাসীন দলের একতরফা বলে যাওয়া নয়। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পাবলিক প্রপার্টি, এটি কোনো ব্যক্তি, দল বা জোটের চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত করা সম্পত্তি নয়। সেখানে যদি আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টিসহ মহাজোটের অন্যান্য দল সমাবেশের অনুমতি পায়, তাহলে বিএনপিকে জনসভা করতে না দেয়া ক্ষমতাসীনদের হুঙ্কারসর্বস্ব রাজনীতিরই প্রতিফলন।’
সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আজ সোমবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির উদ্যোগে চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে জনসভা অনুষ্ঠিত করতে আমরা সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলাম। জনসভা সফল করতে প্রচারপত্র বিলি থেকে শুরু করে ঢাকা মহানগর এবং বৃহত্তর ঢাকা জেলার নেতৃবৃন্দসহ দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠকও করা হয়। এ উপলক্ষে দলের পক্ষ থেকে যথাযথ কর্তৃপক্ষ অর্থাত্ গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী ও পুলিশ কমিশনার বরাবরে আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি।’
Share Button