সৌদি আরবে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়াকে বেশির ভাগ মানুষ স্বাগত জানালেও কেউ কেউ যে রক্ষণশীলতা থেকে এখনো বের হয়ে আসতে পারেনি। সম্প্রতি দেশটিতে গাড়ি চালাতে গিয়ে এক নারী দুর্বৃত্তদের হুমকি ও হয়রানির শিকার হয়েছেন। তার গাড়িতে আগুন দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে।
হয়রানির শিকার সালমা আল শাহরি মক্কার প্রদেশের সামাদ এলাকায় বাস করেন।
তিনি অভিযোগ করেছেন, গত মাসের শেষের দিকে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পরপরই গাড়ি চালানো শুরু করেন তিনি। নিজের গাড়িতে করে বয়স্ক বাবা-মাকে এদিক-সেদিক নিয়ে যেতেন। এটা দেখে মক্কার সামাদ এলাকার একদল তরুণ তাকে গাড়ি চালানো বন্ধ করতে বলেন, কারণ এটা ‘আল্লাহর ইচ্ছার বিরুদ্ধে যায়’। এ ব্যাপারে তারা ক্রমাগত হুমকি ও হয়রানি চালিয়ে যান। তিনি সেসব হুমকিকে পাত্তা দেননি। এ সপ্তাহের শুরুর দিকে দুর্বৃত্তের দল তাঁর গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।
সালমা আল শাহরি তাঁর আগুন ধরিয়ে দেওয়া গাড়ির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে পোস্ট করেন। এ ঘটনাকে তিনি ‘বর্বরোচিত’ কাজ বলে মন্তব্য করেন ৩১ বছর বয়সী ওই নারী। এরপর পরই মক্কার মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের সহ সভাপতি ফাহাদ আল রুকি ক্ষতিপূরণ হিসেবে নতুন একটি গাড়ি দেয়ার ঘোষণা দেন।
এদিকে গাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মক্কার কর্তৃপক্ষ জানায়, এদের একজন প্রেট্রোল নিয়ে আসে আর আরেকজনের সহায়তায় গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।
Share Button