স্টাফ রিপোর্টার (ভোলা)॥
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোলা-৪ আসনে চরফ্যাশন-মনপুরা নির্বাচনী এলাকা হতে স্থানীয় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা জনপ্রিয়তার শীর্ষে বিশিষ্ট মানবাধিকার ব্যক্তিত্ব একাধিকবার গুনীজন সম্মাননায় ভূষিত নির্ভীক কলম সৈনিক প্রবীন সাংবাদিক এম, মনিরুজ্জামান শহীদকে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী হিসেবে চায় বলে খবর পাওয়া গেছে। সরেজমিন তথ্যানুসন্ধ্যানে এবং জনমত রিপোর্টে এমনটাই পরিলক্ষিত হয়েছে।
স্বাধীনতার পর হতে এ আসনে পর্যায়ক্রমে এম, পি, নির্বাচিত হয়েছেন মোঃ ফজলুর রহমান, মাস্টার মোতাহার উদ্দিন,  অধ্যক্ষ সাদ জগলুল ফারুক, অধ্যক্ষ মিয়া মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, মোঃ জাফর উল্যা চৌধুরী ও  আলহাজ্ব মোঃ নাজিম উদ্দিন আলম। মহাজোট সরকারের  আমলে এ আসনে এম, পি, নির্বাচিত হয়েছেন আলহাজ্ব  আবদুল্যা আল ইসলাম (জ্যাকব)। বর্তমানে তিনি পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের উপ-মন্ত্রী  হিসাবে  আছেন।
ভোলা-৪ আসনটি এক সময় জাতীয় পার্টির ঘাটি হিসাবেই সবাই জানতো। তখন ১৯৮৬ তে  এ আসনে জাতীয় পার্টি থেকে এম, পি, নির্বাচিত হন অধ্যক্ষ সাদ জগলুল ফারুক। এরপর ১৯৯৬ তে আসনটি জাতীয় পার্টির হাত ছাড়া হয় এবং বি, এন, পি’র দখলে চলে যায়। তাহাতে আলহাজ্ব মোঃ নাজিম উদ্দিন আলম এ আসন থেকে এম, পি, নির্বাচিত হন। অতঃপর ৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনটি মহাজোট সরকারের দখলে চলে যাওয়ায় মহা জোট প্রার্থী আবদুল্যা আল ইসলাম (জ্যাকব) এম, পি, নির্বাচিত হন এবং গেল ১০ম জাতীয় সংসদ ভোট বিহীন নির্বাচনে জ্যাকবই এম, পি, হন।
আগামী ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোলা-৪ আসনে চরফ্যাশন-মনপুরা নির্বাচনী এলাকা হতে চরফ্যাশন উপজেলা জাতীয় পার্টির দীর্ঘ দেড় যুগ ধরে থাকা সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক জেলা কৃষক পার্টির আহ্বায়ক বিশিষ্ট মানবাধিকার ব্যক্তিত্ব একাধিকবার গুনীজন সম্মাননায় ভূষিত চরফ্যাশন উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক, স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী বেসরকারী সমাজ কল্যাণ প্রতিষ্ঠান (এনজিও) পরিবার উন্নয়ন সহযোগী (পউস) এর চেয়ারম্যান, গণ মানুষে র নিরপেক্ষ মুখপত্র দ্বীপাঞ্চল কণ্ঠের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান সম্পাাদক ও প্রকাশক, জনপ্রিয় জাপা নেতা প্রবীন সাংবাদিক এম, মনিরুজ্জামান শহীদ নির্বাচনী এলাকায় গণ সংযোগ করে আসছেন। তিনি স্থানীয় তৃণমূল নেতা কর্মী হতে শুরু করে সর্বস্তরের জনগণের কাছে গিয়ে দোয়া, আশির্বাদও সমর্থন চাচ্ছেন। ইতিমধ্যে তিনি জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসাবে নির্বাচনী এলাকায় পোষ্টারিং করেছেন এবং ব্যাপক ভাবে প্রচারণা চালিয়ে আসছেন। তিনি ইউনিয়ন, পৌরসভা, ওয়ার্ড ও গ্রামে গ্রামে জনসংযাগ করে বেড়াচ্ছেন। চরফ্যাশন উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতা কর্মীরাও তাঁর হয়েই কাজ করে যাচ্ছেন।
জনমত রিপোর্ট
এমতাবস্থায়, আগামী ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোলা-৪ আসনে  প্রবীন সাংবাদিক এম, মনিরুজ্জামান শহীদকে জাতীয় পার্টি থেকে প্রার্থী মনোনীত করা হলে তিনিই এম, পি, হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। স্থানীয়রা এবং সুশীল সমাজের লোকজনেরা এমনটাই ধারণা করছে। কারণ, তিনি দুর্নীতি ও সন্ত্রাস দমনে নির্ভীক কলম সৈনিক হিসাবে সংবাদিকতায়, সমাজ সেবায় ও মানবাধিকার রক্ষায় নিবেদিত ভাবে কাজ করে আসায় নির্বাচনী এলাকায় যথেষ্ সুনাম কুঁড়িয়েছে। সাংবাদিক এম মনিরুজ্জামান শহীদ একদিকে যেমন কর্ম এলাকার গণমানুষের কাছে বেশ পরিচিত। অন্য দিকে, জনপ্রয়তার শীর্ষে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব জনপ্রিয়তার শীর্ষে জাতীয় পার্টির একজন এম, পি, হওয়ার যোগ্য নেতা বলে সর্বজন স্বীকৃত বলে জানা গেছে।

Share Button