সোনাগাজী(ফেনী)প্রতিনিধি: ‘বই পড়ি পাঠাগার গড়ি’ স্লোগানে জাতীয় পাঠাগার আন্দোলন (জাপাআ) সোনাগাজীর জহির রায়হান পাঠাগার সহ সারাদেশে উদ্বোধন করলো ৪০টি নতুন পাঠাগার।
মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় জাতীয় পাঠাগার দিবসে রাজধানীর সংস্কৃতিক বিকাশ কেন্দ্রে পাঠাগারগুলো উদ্বোধন ঘোষণা করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইস্টিটিউটের সভাপতি ও নাট্যব্যক্তিত্য রামেন্দু মজুমদার। এসময় অতিথিদের হাত থেকে বই ও সার্টিফিকেট গ্রহন করেন জহির রায়হান পাঠাগারের প্রতিনিধি সাংবাদিক মো.শরিয়ত উল্যাহ রিফাত।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞানী, গবেষক, শিক্ষাবিদ এবং জাতীয় পাঠাগার আন্দোলনের অন্য্তম উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য এমিরেটাস প্রফেসর ড. এম ফিরোজ আহমেদ, পরিবেশবিদ আহমদ কামরুজ্জামান।
জাপাআ এর আয়োজনে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কৈশোর ও তারুণ্যের বই এবং সময় টেলিভিশনের বার্তা প্রধান তুষার আবদুল্লাহ এবং সভাপতিত্ব করেছেন জাপাআ এর উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আরিফুল সাজ্জাত।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জাপাআ এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আরিফ চৌধুরী শুভ।
এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন সারাদেশ থেকে আগত বিভিন্ন পাঠাগারের প্রতিনিধিবৃন্দ।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথিম রামেন্দু মজুমদার বলেন, আগে পাঠাগারে পড়াশুনা হতো। এখন আরো বেশি হচ্ছে। কিন্তু শুনে অবাক হবেন যে, যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বড়বড় গ্রন্থাগারে সারাদিন পড়ছে আর পড়ছে, তারা শুধু চাকুরির প্রস্তুতির জন্য পাঠাগারে যাচ্ছে। মনের খোরাক কি তারা পাচ্ছে? আমাদের মনের খোরাকওতো দরকার আছে। আপনারা মনে রাখবেন, শুধু পাঠাগারের বই সাজিয়ে রাখলেই হবে না, বইকে ভালোবেসে পড়তে হবে। বইয়ের সাথে আত্মার সম্পর্ক সৃষ্টি করতে হবে।

Share Button