বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডেস্ক:

সঠিকভাবে টাকার হিসেব রাখা ও জাল টাকা সনাক্ত করা যে কোন ব্যবসা সঠিক ভাবে পরিচালিত হওয়ার পিছনে প্রধান ভুমিকা রাখে । আপনারা যারা যারা ব্যবসায়ী রয়েছেন তারা নিশ্চই আপনাদের ব্যবসার সকল হিসাব নিকাশ খালি হাতেই করে থাকেন। এর ফলে আপনাদের যেমন প্রতিদিন প্রচুর মূল্যবান সময় নষ্ট হচ্ছে পাশাপাশি আপনার মনে ও শরীরে বিরক্তি ও ক্লান্তিকর একটা অনুভুতিরও সৃষ্টি হচ্ছে। তবে এই সমস্যার একটি স্মার্ট সমাধান ও রয়েছে । সেটা হলো মানি কাউন্টিং মেশিন। আমাদের দেশের বাজারে যা সম্পূর্ণই নতুন একটি প্রযুক্তি। ছোট বড় ব্যবসায়ীদের জন্য মানি কাউন্টিং মেশিনটা এমন একটি প্রযুক্তি যার মাধ্যমে মাত্র ৫-৬ সেকেন্ডের মধ্যেই ১০০টি নোট কাউন্ট করা সম্ভব। এছাড়াও আল্ট্রা ভায়োলেট পদ্ধতির মাধ্যমে জাল টাকাও সনাক্ত করতে পারে এই ধরনের মেশিন। আপনি চাইলে যে কোন ধরনের টাকার নোট (সেটা ২ টাকা, ৫ টাকা, ১০ টাকা, ২০টাকা, ৫০টাকা, ১০০টাকা, ৫০০টাকা, ১০০০টাকা ইত্যাদি) গণনা ও জাল সনাক্ত করতে পারবেন কয়েক সেকেন্ডের মাধ্যেই।

আপনি চাইলে মেশিনগুলোর মাধ্যমে কাস্টম ও ব্যাচ কাউন্টিং করতে পারবেন। কাস্টম কাউন্টিং মানে হলো আপনার সব সময় ১০০টি নোট নাও গণনা করা লাগতে পারে তখন আপনি চাইলে ২০টি, ৩০ টি অথবা ৫০টি এইভাবে যে কোন ব্যাচ দিয়ে টাকা গণনা করতে পারবেন। কাস্টম কাউন্টিং মানে যে কোন সংখ্যা হতে পারে যেমন ৩১, ২৫, ৫১, ৭৯, ৯১ ৯৩ ইত্যাদি টি করে নোট গণনা করতে পারবেন।

মনে করুন আপনার এমন একটি ব্যবসা রয়েছে যেখানে প্রতিদিন প্রচুর লুজ নোট আসে যেমন ১০ টাকা, ৫টাকা, ১০০টাকা. ৫০০-১০০০টাকা ইত্যাদি। তো আপনি সারা দিনে আসা সব গুলো নোট আলাদা আলাদা করে সংরক্ষণ করে রাখুন দিন শেষে নোটগুলো শুধু মেশিনে দিয়ে দিন কয়েক মুহুর্তেই আপনার সারা দিনের হিসেব বের হয়ে আসবে। সাথে জাল নোট ও সনাক্ত হয়ে যাবে। এই ধনের মেশিন গুলোতে দুটি ডিসপ্লে থাকে তাই কোন কাস্টমার আপনাকে কত টাকা দিলো সেটাও সেই কাস্টমার দেখতে পারবে খুব সহজেই।

বাজারে এই মানি কাউন্টিং মেশিন পাওয়া যাচ্ছে ১,২০,০০০ টাকায় যা আপনি এখানে থেকে দেখে নিতে পারেন।

তথ্যসূত্রঃ বিজফ্লয়েন্ট, বিডিস্টল 

Share Button