রংপুর ব্যুরো:
রংপুর সদর উপজেলার হরিদেবপুর, চন্দনপাট ও সদ্যপুষ্করিনী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে ত্রিমুখী ভোট যুদ্ধ হতে পারে বলে স্থানীয়রা ধারণা করছেন। কারণ তিন ইউনিয়নে কোন প্রার্থীর একক অবস্থানে নেই। কার পক্ষে বেশী ভোট যাবে, কে বিজয়ী হতে পারে, কে ভোটের মাঠে এগিয়ে আছে তা অনুমান করতে পারছে না ভোটাররা। তাই এখন নিজস্ব ভোট ব্যাংক রক্ষায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।
ভোটের মাঠ ঘুরে জানা গেছে, সদ্যপুস্করিনী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মকছেদুর রহমান দুলু ব্যাপারী, জাতীয় পার্টির প্রার্থী ফজলুল হক ফুলবাবু, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান সোহেল রানার সাথে ভোট যুদ্ধ হবে। তবে বিজয়ের মালা কার গলায় আসবে সমীক্ষা কিংবা পরীসংখ্যান করে ভোটের হিসাব মেলানো যাচ্ছে না।
হরিদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী একরামুল হক, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান প্রার্থী মফিজল ইসলাম জর্দা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ইকবাল হোসেন ভোটের মাঠে রয়েছেন।
চন্দনপাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান, জাতীয় পার্টির প্রার্থী রুহুল আমিন লিটন, আন্ডারডগ হিসেবে দেখা দিয়েছেন সাবেক চেয়ারম্যান সাইদুল ইসলাম চৌধুরীর বড় ছেলে লিটন চৌধুরী। তিনি মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
৩ ইউনিয়নে মোট চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত আসনসহ মোট ১৯০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১৬ জন, সাধারণ সদস্য পদে ১২৭ জন এবং সংরক্ষিত আসনে ৪৭ জন ভোটের মাঠে রয়েছেন।
আসন্ন্ আগামী ২০ অক্টোবর রংপুর সদর উপজেলার তিন টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Share Button