নন্দিত মডেল ও নাট্যাভিনেত্রী তানভীন সুইটি। ছবি: সংগৃহীত

নন্দিত মডেল ও নাট্যাভিনেত্রী তানভীন সুইটি। টেলিভিশন মিডিয়ায় কাজ করছেন বহুবছর হলো। ক্যারিয়ারের শুরুতে তিনি একজন মডেল হিসেবে বেশ আলোচিত ছিলেন। পরবর্তী সময়ে অভিনয়েও তিনি দর্শকের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেন। দীর্ঘদিনের এই জার্নিতে বিজ্ঞাপনে মডেল হওয়ার ক্ষেত্রে কিংবা নাটকে অভিনয় করার ক্ষেত্রে তানভীন সুইটিকে কখনোই কোনো মানহীন কাজে দেখা যায়নি। করলে ভালো কাজই করতে হবে, নইলে নয়—যেন এই ছিল সুইটির প্রতিজ্ঞা।

এরই মধ্যে সুইটিকে নতুন দুটি বিজ্ঞাপনে দেখা গেছে। একটি মুন্নু সিরামিকের, আরেকটি ম্যাগি মসলার। দুটি বিজ্ঞাপনের জন্যই বেশ প্রশংসিত হয়েছেন, পেয়েছেন অভূতপূর্ব সাড়া। নিজের ব্যক্তিত্ব বজায় রেখেই সুইটি বিজ্ঞাপনগুলোতে নিজের সঙ্গে বোঝাপড়া করেই কাজ করেছেন। এ সপ্তাহেই বিজ্ঞাপনটি প্রচারে এসেছে। নির্মাণ করেছেন পিপলু। বিজ্ঞাপনটি প্রচারের শুরু থেকেই এতে মডেল হিসেবে কাজ করার জন্য দারুণ প্রশংসিত হচ্ছেন সুইটি।

মূলত এই বিজ্ঞাপনে তার কাজ করার দুটি কারণ। যার একটি হচ্ছে বিজ্ঞাপনটি নির্মিত হয়েছে দেশের কোটি কোটি মানুষকে সচেতন করার জন্য; দ্বিতীয়ত, বিজ্ঞাপনটির গল্প এবং নির্মাতার প্রতি আস্থা। বিজ্ঞাপনটিতে কাজ করা প্রসঙ্গে তানভীন সুইটি বলেন, হঠাত্ করেই কেন যেন এই মুহূর্তে অনেক বিজ্ঞাপনে কাজ করার প্রস্তাব পাচ্ছি। কিন্তু আমি শুরু থেকেই মানসম্পন্ন কাজ করার পক্ষপাতি ছিলাম। মানের সঙ্গে কখনোই আপোস করিনি। হোক তা নাটকে কিংবা বিজ্ঞাপনে। বিকাশের বিজ্ঞাপনটি প্রচারের পর থেকে যেন কাজ করার প্রস্তাব আরো বেড়ে যাচ্ছে। কিন্তু আমি বুঝে-শুনে কাজ করতে চাচ্ছি। ধন্যবাদ জানাই বিজ্ঞাপনটির নির্মাতা সহ পুরো ইউনিটকে। ধন্যবাদ আমার ভক্ত-দর্শককে, যারা সবসময় আমাকে অনুপ্রেরণা দিয়ে থাকেন। ধন্যবাদ আমার স্বামী রিপনকেও আমার কাজগুলোকে সমর্থন দেওয়ার জন্য, আমাকে সবসময় অনুপ্রেরণা দেওয়ার জন্য। সত্যি বলতে কি, একজন শিল্পীর ভালো কাজ করার সর্বোচ্চ শক্তি হচ্ছে অনুপ্রেরণা। এই অনুপ্রেরণা নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি, আগামীতেই তাই করব ইনশাআল্লাহ।

মাহবুবা ফেরদৌসের প্রযোজনায় তানভীন সুইটি নতুন ধারাবাহিক ‘পিছুটান’-এ অভিনয় করছেন। আফজাল হোসেনের নির্দেশনায় ‘ডায়মন্ড ব্র্যান্ডের তেল’র বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেই দর্শকের কাছে সমাদৃত হন তিনি। সম্প্রতি শামীম আহম্মেদ রনির নির্দেশনায় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘আগস্ট ১৯৭৫’র কাজ শেষ করেছেন। তানভীন সুইটি জানান, বঙ্গবন্ধু খুন হওয়ার পরের দু’দিন তাজউদ্দিন আহমেদ এবং তার স্ত্রীর মধ্যকার আলাপচারিতা, ঘটনা নিয়ে এই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি নির্মিত। মুজিববর্ষে এটি প্রচার করা হবে।

Share Button