প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। ছবি: সংগৃহীত

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, শহর ও গ্রামের মধ্যে ব্যবধান কমাতে শেখ হাসিনার সরকার নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। তাই গ্রামেই স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিনোদনসহ সব সুযোগ সুবিধা থাকবে। শহরের সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করে উন্নত বিশ্বের ন্যায় প্রতিটি গ্রাম হবে স্বয়ংসম্পূর্ণ। মানুষের মৌলিক চাহিদা হিসেবে খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি সংস্কৃতিকে প্রাধান্য দিয়ে তৈরি করা হবে গ্রামগুলো।

বৃহস্পতিবার গোয়াইনঘাট উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে উন্নয়নমূলক প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও উদ্বোধন কালে এসব কথা বলেন।

প্রকল্প গুলোর মধ্যে রয়েছে, উপজেলার নবগঠিত ১০নং পশ্চিম আলীরগাওঁ ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ের উদ্বোধন, পশ্চিম আলীরগাওঁ ইউনিয়নের পুকাশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের লাইব্ররি ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং বিশ্ব ব্যাংকের যৌথ অর্থায়নে পূর্ণানগর গ্রামে পানি শোধনাগার প্রকল্পের উদ্বোধন, গোয়াইনঘাট উপজেলা সদরে ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলা মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর, এলজিইডির অর্থায়নে গোয়াইনঘাট উপজেলা সদরে অবস্থিত পুকুর পাড়ের চতুর্দিকের পাকা কাজের ভিত্তি প্রস্তর।

মন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে দেশের ৮ বিভাগে ১৫টি গ্রামকে মডেল হিসেবে বেছে নেওয়া হবে । পর্যায়ক্রমে তা বাড়িয়ে ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত বাংলাদেশের সকল গ্রামকেই এর অন্তর্ভুক্ত করা হবে। নাগরিকদের প্রাপ্য সকল প্রকার সুবিধা নিশ্চিত করতে যৌথভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়। শহরের নাগরিকদের দেওয়া সরকারের সকল প্রকার সেবার সুযোগ দেওয়া হবে গ্রামে বসবাসকারীদের।

Share Button