রংপুর ব্যুরো:
রংপুরের পীরগাছা উপজেলার মল্লিকপাড়া গ্রামে সরকারি নীতিমালা ভঙ্গ করে অন্যায় ভাবে বোরিং লাইসেন্স নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
আজ শুক্রবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,পীরগাছা উপজেলার মল্লিকপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক নামে অসহায় এক কৃষক বোরিং লাইসেন্স নেওয়ার পর পল্লী বিদ্যুৎ থেকে সেচ সংযোগ নিয়ে চাষাবাদ করে আসছে । এর ফলে একটি প্রভাবশালী মহল তাকে বিভ্রান্তি করার জন্য পায়তারা চালাচ্ছে।
জানা গেছে, কৃষক আব্দুর রাজ্জাক বোরিং লাইসেন্স নিয়েছেন ২০১৬ সালে। যার লাইসেন্স নং ১০৩৬। বোরিং লাইসেন্সটি ২০২১ সাল পর্যন্ত নবায়ন করা হয়।
ঐ বোরিং হতে ১২০ ফুট দুরে আরেকটি বোরিং স্থাপন করে লাইসেন্স নেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে ্্একই এলাকার প্রভাবশালী এক ব্যাক্তি আব্দুর রহিম।
স্থানীয়ারা জানান, বিগত সময় থেকে রাজ্জাকের সেচ পাম্প থেকে জমিতে পানি নিযে চাষাবাদ করে আসতেছি। এখানে একটি সেচ সংযোগ থাকার পর পাশা পাশি আর একটি সেচ সংযোগ না দেওয়ার জানান দাবী এলাকাবাসী ।
অভিযুক্ত রহিমের সাথে কথা তিনি বলেন,আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সম্পুর্ণ মিথ্যা। অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে গনমাধ্যম কর্মীদের উপর ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেন তিনি।
পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমিন প্রধান জানান, এ বিষয়টি নিয়ে তারা আমার কাছে এসেছিলো। যে তদন্তে গিয়েছিল তাকে উপজেলা সেচ কমিটিতে বিষয়টি উপস্থাপন করার জন্য বলেছি। উপজেলা সেচ কমিটির সিদ্বান্ত যদি না মানে, জেলা সেচ কমিটির মিটিংয়ে তারা আবেদন করতে পারবে

Share Button