শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল

ঢাকা: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্যসহ অন্যান্য শিক্ষকদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনকে (ইউজিসি) গণশুনানির নির্দেশনা দেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) অনলাইনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

 এসময় সংবাদ সম্মেলনে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান।

মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, গণশুনানি ইউজিসির তদন্ত প্রক্রিয়ায় আছে কিনা, নির্ধারিত আইনে এখতিয়ার আছে কিনা সেটা তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর আমরা দেখবো। যদি প্রক্রিয়া না মেনে তদন্তটি হয় তাহলে তদন্ত প্রশ্নবিদ্ধ হয়। এটি অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। আমরা দেখবো গণশুনানির মতো করে তদন্ত করা সমীচীন কিনা। আমরা কিন্তু গণশুনানি করার কোনো নির্দেশনা দেইনি। তদন্ত করার জন্য বলেছি।

শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, উপাচার্যের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এসেছে সেটি ইউজিসিতে পাঠিয়েছিলাম। তারা তদন্ত করেছেন। একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছেন। সেটি এখনও আমার কাছে এসে পৌঁছায়নি। রাবি উপাচার্যের বিষয়ে পর্যালোচনা করবো। আমরা এ বিষয়টা নিয়ে বসে সিদ্ধান্ত জানাবো।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগে অনিয়ম নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠে তখন নিয়ম অনুযায়ী তদন্ত করে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। আমরা যে উদ্যোগ নিয়েছি এটি তার ব্যতিক্রম নয়। আমাদের কাছে উপাচার্যের বিরুদ্ধে যে লিখিতভাবে অভিযোগ এসেছে সেটি ইউজিসিতে পাঠিয়েছিলাম। তারা তদন্ত করেছেন এবং একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছেন। সেটি এখনও আমার কাছে এসে পৌঁছায়নি।

Share Button