ছবি: সংগৃহীত

সোমবার রাতে হঠাৎ করেই লা প্লাতার ইপেন্সা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে ম্যারাডোনাকে। গত শুক্রবার, বুয়েনস আয়ার্স এর স্থানীয় ক্লাব জিমনাসিয়ার মাঠ থেকে চলে যাওয়ার পর থেকেই আর দেখা মেলেনি তার। গতকাল হঠাত হাসপাতালে ভর্তি হবার পর থেকেই বিভিন্ন পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে তাকে।

দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক লিপোলদো লুক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেছেন, “বেশ কিছুদিন ধরেই ম্যারাডোনার অবস্থা ভালো ছিল না এবং তাঁকে অন্তত তিন দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। মানসিকভাবেও মোটেও ভালো নেই তিনি, যেটা তাঁর শরীরে প্রভাব ফেলেছে।”

তবে, বর্তমানে তার অবস্থা খুব একটা শোচনীয় নয়, অন্তত কোভিড-১৯–সংক্রান্ত কিছু হয়নি বলে আশ্বস্ত করেছেন লুক।

লুক আরও বলেন, যতোটা সুস্থ হলে আমি খুশি হতাম, তিনি ততোটা সুস্থ নন। আমি মনে করি, তার বর্তমানের অবস্থা থেকে আরও ভালো থাকা উচিত। তার সাহায্য দরকার, আর এখনই সময় আমাদের তাকে সাহায্য করার। ডিয়েগো এমন একজন, যিনি মাঝেমধ্যে অসাধারণ এবং বাকি সময় ততোটা না। তার নিজের বর্তমানের চেয়ে ১০ হাজার গুণ ভালো থাকা উচিত। এখানে নিয়ে আসাটা তাকে সাহায্য করবে। ডিয়েগো ম্যারাডোনা হয়ে ওঠা খুব কঠিন।

তবে, ঠিক কী কারণে ম্যারাডোনাকে হাসপাতালে আনা হয়েছে, সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাতে রাজি হননি লুক।

প্রসঙ্গত, নিজের ৬০তম জন্মদিন পালন উপলক্ষে গত শুক্রবার অসুস্থ ম্যারাডোনা ক্লাব জিমনাসিয়ায় এসেছিলেন। দিনটা সকলের সাথে উপভোগ করতে কেকও কেটেছিলেন। কিন্তু শরীরের অবস্থা বেশি ভালো না হওয়ায় ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারেননি। ফুটবল জগতের লিজেন্ডের জন্মদিনে স্তুতিবাক্যে ভরে উঠছিল সংবাদমাধ্যম থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। বিশ্বের প্রায় সকল ফুটবল তারকাই এইদিন তাকে স্মরণ করেছেন।

Share Button