হুয়াওয়ের লোগো। ছবি : সংগৃহীত

হুয়াওয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশসহ এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে ‘হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিং’ সুবিধা চালু করেছে। এর মাধ্যমে একটি নিরাপদ ও নির্ভরযোগ্য ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দূরদূরান্ত থেকে একে অপরের সঙ্গে যুক্ত হওয়া যাবে। ডিভাইস ও ক্লাউডের অনন্য সমন্বয়ে তৈরি এই ভিডিও কনফারেন্স ব্যবস্থার মাধ্যমে বিশ্বের যেকোনো স্থান থেকে যেকোনো সময়ে সর্বোচ্চ এক হাজার জন পর্যন্ত অংশগ্রহণকারী একসঙ্গে যুক্ত হতে পারবেন।

 এক বিজ্ঞপ্তিতে হুয়াওয়ে জানিয়েছে, ডিভাইস-ক্লাউড সিনার্জি প্রযুক্তির সহায়তায় এ সল্যুশনের মাধ্যমে এক ক্লিকের মাধ্যমেই যেকোনো কম্পিউটার, মোবাইল ফোন, ট্যাবলেট, মিটিং রুম টার্মিনাল এবং স্মার্ট টিভির মধ্যে ডেটা শেয়ার ও ট্রান্সফার করা যাবে। এ ছাড়া এ সল্যুশন ডেটা, অডিও ও ভিডিওর আলট্রা-ফাস্ট ওয়্যারলেস প্রজেকশন সমর্থন করবে। উন্নত প্রযুক্তিতে তৈরি এই ক্লাউড মিটিং যেকোনো অভ্যন্তরীণ বা বাহ্যিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে হয়ে উঠতে পারে এক যুগান্তকারী সমাধান।

বৈশ্বিক মহামারি উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শারীরিক নিরাপত্তা বজায় রেখে প্রয়োজনীয় দাপ্তরিক যোগাযোগ সম্পন্ন করার জন্য ভিডিও কনফারেন্সের ব্যবহার ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। ডিজিটাল ফাইন্যান্স, টেলিমেডিসিন ও ডিজিটাল সরকারব্যবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে ইন্টেলিজেন্ট এডুকেশনসহ বৈচিত্র্যময় কার্যপ্রক্রিয়া ও ধারা পরিচালনাকে সহজ করার লক্ষ্যে হুয়াওয়ে এই ক্লাউড মিটিং প্রযুক্তি ডিজাইন করেছে।

এ নিয়ে হুয়াওয়ে এশিয়া প্যাসিফিকের ক্লাউড অ্যান্ড এআই প্রেসিডেন্ট ড্যানিয়েল ঝোউ বলেন, ‘ভার্চুয়াল মিটিংয়ের অভিজ্ঞতায় যুগান্তকারী পরিবর্তন নিয়ে আসার লক্ষ্যে হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিং উন্মোচন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা দূরে বসেও মুখোমুখি আলোচনার অভিজ্ঞতা পাবেন, যা তাদের যোগাযোগকে আরো সহজ ও নিরবচ্ছিন্ন করে তুলবে। অডিও-ভিডিওর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে বিনিয়োগ, কার্যপ্রণালিকে সহজতর ও দ্রুততর করা এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে স্বাচ্ছন্দ্য নিয়ে আসতে আমরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছি।’

অনলাইন প্ল্যাটফর্মভিত্তিক যোগাযোগের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে এর নিরাপত্তা ও অংশগ্রহণকারীদের তথ্যের গোপনীয়তা নিয়েও যথেষ্ট সচেতনতা ও প্রশ্নের উদ্ভব ঘটছে। হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিংয়ের অন্যতম উদ্দেশ্য হলো ক্লাউড এবং ডিভাইসের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে তথ্যের আদান-প্রদান থেকে শুরু করে গবেষণা, উন্নয়ন এবং অপারেশন ও ম্যানেজমেন্ট (ওঅ্যান্ডএম) ডেটা মনিটরিং সবকিছুকে সুরক্ষা বলয়ে নিয়ে আসা। ডেটা আইসোলেশন এবং এইএস২৬৫ এনক্রিপশনের মাধ্যমে এটি মিটিংয়ের তথ্য ও রেকর্ডিংকে সর্বোচ্চ সুরক্ষা দান করে। উদ্ভাবনের উৎকর্ষের স্বীকৃতিস্বরূপ এ প্রযুক্তিগত ডিজাইন রেড ডট ২০২০ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে।

হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিংয়ের যুগোপযোগী সল্যুশনের মাধ্যমে আলট্রা-এইচডি মাধ্যমে একে অন্যের সঙ্গে নিরাপদে যুক্ত হওয়া যাবে। এর নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাও সহজ, সেইসঙ্গে এর ফুললি ওপেন এপিআই ব্যবস্থা সহজেই থার্ড পার্টি অ্যাপ্লিকেশন এবং ওয়েব প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে সুবিধা সমর্থন করে।

https://rebrand.ly/hwCM1fb এই লিঙ্ক ব্যবহার করে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে হুয়াওয়ে ক্লাউড মিটিংয়ে নতুন যুক্ত হওয়া ব্যবহারকারীরা ১০০ ইউএস ডলার মূল্যমানের ছাড় উপভোগ করতে পারবেন।

Share Button