সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

শ্বাসনালির অস্ত্রোপচার সফলভাবেই করা সম্ভব হয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। গতকাল বুধবার তার শ্বাসনালিতে অস্ত্রোপচার (ট্র্যাকিয়োস্টমি) কয়ারা হয়। এতে নতুন করে শারীরিক অবস্থার কোনও অবনতি ঘটেনি তার।

 শ্বাসনালিতে অস্ত্রোপচার করার কথা গত মঙ্গলবারই জানান চিকিৎসকরা। চিকিৎসক অরিন্দম কর জানান, পরবর্তী পদক্ষেপ হিসেবে সৌমিত্রর প্লাজমাথেরাপির চিন্তাভাবনা চলছে। যদি সব ঠিকঠাক থাকে, সেক্ষেত্রে বৃহস্পতিবারই এই থেরাপি করা হতে পারে।

তিনি আরও জানান, সৌমিত্রের শরীরের অন্যান্য মাপকাঠিগুলো ঠিকই রয়েছে। তবে তিনি এখনও খুব দুর্বল। তাঁর চিকিত্সায় কো-মর্বিডিটি সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এ জন্যই খুব সতর্কতার সঙ্গে প্রতিটি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান চিকিৎসক অরিন্দম।

শ্বাসনালির অস্ত্রোপচার সফলপ্রসঙ্গত, গত ৬ অক্টোবর কোভিড নিয়ে অভিনেতা ভর্তি হন বেলভিউয়ে। প্লাজমা থেরাপির পর তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। শরীরের অবস্থা উন্নতি হলে চিকিত্সকরা জানান আশঙ্কামুক্ত রয়েছেন তিনি। তবে, আবারও খারাপের দিকে যায় তার শরীরের অবস্থা। স্টেরয়েডের ডোজ কমানোর পরই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অচেতন ভাব বেড়ে গেছে। শুধু তাই নয়, অভিনেতার মস্তিষ্কের চেতনাও কমে গেছে। তাই নতুন করে তার জন্য বিশেষ মেডিক্যাল বোর্ডে যোগ করা হয় পাঁচ স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞকে।

বিগত কয়েকদিন ধরেই উচ্চমাত্রার স্টেরয়েড দেয়া হচ্ছিল সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে। তাই খানিক সুস্থ হতেই অভিনেতার স্টেরয়েডের মাত্রা কমানো হয়েছিল। স্টেরয়েড ছাড়া মাথা কেমন কাজ করে, সেটাই দেখার অপেক্ষায় ছিলেন অরিন্দম কর পরিচালিত মেডিকেল টিম। কিন্তু সেখানেই ফের একবার সমস্যার সূত্রপাত। স্টেরয়েডের মাত্রা কমানোর জন্য বুধবার থেকে আবারো সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক পরিস্থিতির অবনতির খবর জানা যায়।

Share Button