সরকার পরিবর্তনে বিএনপি গণজাগরণের অপেক্ষায় আছে বলে জানিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

 ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৬তম জন্মদিন উপলক্ষে শুক্রবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা জানান।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, দলের নেতাকর্মীরা শুধু একটা সুযোগ, একটা পরিবেশের অপেক্ষায় আছে। একটি গণজাগরণের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় দিয়ে একাত্তরের যে স্বপ্ন ছিল, একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে আমরা বদ্ধপরিকর।

তিনি জানান, দলের এই লক্ষ্য অর্জনে কোথায় মৃত্যু হবে, কোথায় হবে না সেটি নিয়েও বিএনপির নেতাকর্মীরা ভাবে না।

১৯৬৫ সালের ২০ জানুয়ারি বগুড়ার বাগবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বড় ছেলে তারেক রহমান।

দিবসটি উপলক্ষে আজ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বিএনপি।  অনুষ্ঠানে গয়েশ্বর বলেন, আমাদের নিষেধ আছে- যার জন্মদিন পালন করছি স্বয়ং তার পক্ষ থেকেও আহ্বান আছে যে, এই দিনে কেক কাটা নয়। দোয়া এবং পারলে গরিবদের মাঝে খাবার বিতরণ করার। কিন্তু আবেগ তো এই নিষেধ মানে না। আজকে কম হলেও ১০ হাজার কেক কাটা হবে। কারণ আবেগের জায়গায় কিন্তু বাস্তবতা পরাজিত হয়।

বিএনপির দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের পরিচালানায় দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান ও হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আমিনুল হক, মীর সরফত আলী সপু প্রমুখ।

এ ছাড়া দিনের প্রথম প্রহরে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কেক কাটেন সংগঠনের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সিনিয়র সহসভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হাসান শ্যামল, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল।

Share Button