চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চর ইসলামাবাদ নামোচরি (নিমগাছি) এলাকায় সবজি খেত কেটে নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা। গত ১৬ তারিখ বেলা ১১ টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। সবজিখেতে পেয়াজ, বেগুন, ফুলকপি, টমেটো, মূলা ও লালশাগের গাছ কেটে নষ্ট করে জমি দখল নিয়েছে দুর্বৃত্তরা।
জানাগেছে, চরইসলামাবাদ নামোচরি এলাকার সোহেল রানা ও একই এলাকার তরিকুল ইসলাম,দীর্ঘদিন ধরে মোজাম্মেল হক নামে জমির মালিকের কাছে বর্গা নিয়ে বিভিন্ন শাকসবজির চাষাবাদ করে আসছেন। এমন অবস্থায় গত ১৬ নভেম্বর আততাফ উদ্দিন মেম্বার ও তার লোকজন এসে নিজেদের জমি দাবি করে। কোন কথা না শুনে ৪ বিঘা জমির সবজিখেত হাঁসুয়া দিয়ে কেটে নষ্ট করে দেয় এবং এ জমি তাদের বলে দাবি করে।
বর্গাকৃত পরিবারগুলোর একমাত্র ভরসা ছিল এ সবজি খেত। কিস্তি নিয়ে তারা সবজি চাষ করেছিল। আর কিছুদিন পরেই সবজি বিক্রি করে কিস্তি পরিশোধ করার কথা ছিল কিন্তু তার আগেই যেন সব ছারখার হয়ে গেল।
জমি বর্গানেয়া সোহেল রানা জানান, বিগত ১০ বছর থেকে আমরা এ জমিতে চাষাবাদ করে আসছি। কোনদিন কোন সমস্যা হয়নি। এবারি আততাফ উদ্দিন মেম্বার ও তার সাঙ্গোপাঙ্গরা এসে এ জমি তাদের বলে দাবী করে। আমরা বিষয়টির জন্য সময় চাইলেও সে সুযোগ দেয়নি আমাদের। আজ আমরা নিঃস্ব হয়ে গেলাম। আমরা এর বিচার চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট বিচার দাবী করছি।
জমি বর্গানেয়া আরেকজন তরিকুল ইসলাম বলেন, ৪ বিঘা জমির সবজি নিমিষেই আততাফ উদ্দিন মেম্বারের লোকজন কেটে নষ্ট করে । তাদের হাতেপায়ে ধরে কান্নাকাটি করেছি তবু ওরা কোন কথা শুনেনি। আমরা পরিবার নিয়ে কিভাবে বাঁচবো এখন। সরকারসহ প্রশাসনের কাছে বিচার দাবী করছি। তিনি আরও বলেন, সেদিন আততাফ উদ্দিন মেম্বারের লোক রেজা, সাদেকুল, সেন্টুসহ আরও অনেকে এ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালায়।
ভুক্তভোগী পরিবারের মোমেনা বেগম ও সিমা বেগম জানান, আমরা সেদিন বাড়িতেই কাজ করছিলাম। হটাৎ মেম্বারের সাঙ্গপাঙ্গ এসে হাঁসুয়া, দেশী অস্ত্র দিয়ে আমাদের শাসায়। কান্না জড়িত কণ্ঠে তারা জানান, আমরা সবাই অনুরোধ করেছি সবজিখেত নষ্ট না করতে। কিন্তু তারা কর্ণপাত করেনি। কিস্তি নিয়ে জমিতে সবজি চাষ করেছিলাম। এ থেকে সবজি বিক্রি করে কিস্তি পরিশোধ করতাম ও আর যা লাভ হতো তা দিয়ে সংসার চালাতাম। কিন্তু এখন সব শেষ বলেই হাউমাউ করে কাঁদতে লাগলেন মোমেনা বেগম।
স্থানীয় এলাকার বাসীন্দা এহসান আলী জানান, আমরা জানি সোহেল ও তরিকুল বর্গা নিয়ে এ জমিতে চাষাবাদ করত। কিন্তু ১৬ নভেম্বর সন্ত্রাসীরা এসে জমির সব সবজি, গাছ কেটে নষ্ট করে দেয়। গরীব পরিবারগুলো এর জন্য পথে বসে গেল।
আরেক বাসিন্দা আফসার আলী জানান, মেম্বারের লোকজন দেশীয় অস্ত্র এনে বর্গানিয়ে চাষকরা জমির সব সবজির গাছ কেটে দেয়। গরীবের উপর এ অন্যায় মেনে নেয়া যায় না। আমরা সবাই এ ঘটনায় বিচার দাবী করছি এবং দোষীদের শাস্তি হোক এবং অসহায় গরীব পরিবারগুলোকে ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা হোক।
এ বিষয়ে সদর মডেল থানার এসআই আব্দুস সালাম জানান, ভুক্তভোগীরা পুলিশকে জানালে ঐ এলাকায় সবজিখেত নষ্ট করার আলামত দেখতে পাওয়া যায়। এজাহার দায়ের হলে পুলিশ পরবর্তী প্রক্রিয়া তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
আততাফ উদ্দিন মেম্বার এ ব্যাপারে জানান, আমি বা আমার কোন লোকজন চর ইসলামাবাদ নামোচরির ৪ বিঘা সবজিখেত নষ্ট করেনি। আমার সম্মানহানি ও সমাজে আমাকে হেয় করে মিথ্যা রটানো হচ্ছে।

Share Button