ওয়ার্নারকে নিয়ে লোকেশ রাহুলের বিতর্কিত মন্তব্য, সমালোচনার ঝড়। ছবি : সংগৃহীত

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুটিতে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাত্তাই পায়নি ভারত। অজিদের কাছে স্রেফ উড়ে গেছে বিরাট কোহলিরা। সিরিজ হারের শোক হয়তো মেনে নিতে পারছেন না দলটির উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুল। করে বসলেন ইনজুরি আক্রান্ত ডেভিড ওয়ার্নারকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য। এরপরেই তা নিয়ে শুরু হয় সমালোচনার ঝড়।

ওয়ার্নারের চোটে যখন বড়সড় ধাক্কা অস্ট্রেলিয়া শিবিরে। অথচ বিষয়টি নিয়ে বেশ খুশি রাহুল। শুধু খুশি হওয়াই নয়, মুখেও বলেছেন সে কথা। এতে তার স্পোর্টসম্যানশিপ স্পিরিটও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। ওয়ার্নারকে নিয়ে রাহুলের মন্তব্যের পরেই শুরু হয় সমালোচনা।

সিডনিতে ভারতের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ফিল্ডিং করার সময় কুঁচকিতে চোট পেয়ে সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন ওয়ার্নার। ওয়ানডে নিয়ে মাথাব্যথা নেই অসি কোচ ল্যাঙ্গারের। কারণ, দু’টি ম্যাচ জিতে এরইমধ্যে সিরিজ তাদের পকেটে। কিন্তু টি-টোয়েন্টি সিরিজে সেখানে ওয়ার্নারকে পাওয়া যাবে না। শোনা যাচ্ছে, টেস্ট সিরিজেও তার খেলার সম্ভাবনা অনিশ্চিত। তার পরিবর্তে সাদা বলের ক্রিকেটে (টি-টোয়েন্টি) ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ডি আর্কি শর্টকে দলে নিয়েছে।

কি বলেছিলেন লোকেশ রাহুল? সিরিজ হারের পর মিডিয়ার সামনে রাহুলকে প্রশ্ন করা হয়, ‘আপনি কি শুনেছেন চোটের কারণে ওয়ার্নার সিরিজের বাইরে? ছোট ফরম্যাটে খেলবেন না তিনি। টেস্টেও অনিশ্চিত!

শুনে খানিকটা রসিকতার ছলেই মন্তব্য করেন রাহুল। বলেন, ‘এটা অবশ্যই অস্ট্রেলিয়ার জন্য ক্ষতির বিষয়। তবে আমরা চাইব ও যেন তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরে না আসে। তাহলে আমাদেরই সুবিধা হবে বেশি।’

আর এতেই বিতর্কের ঝড় ওঠে। অনেকেই বলতে থাকেন, একজন ক্রিকেটারের চোট নিয়ে কেউ এভাবে কথা বলতে পারেন না। অন্য এক নেটিজেনের কথায়, রসিকতা করে বলে থাকলেও ঠিক করেননি রাহুল। স্পোর্টসম্যানশিপ স্পিরিট দেখানো উচিত ছিল তার। যদিও এখনও পর্যন্ত এ নিয়ে আর কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি রাহুল।

Share Button