স্বীকৃতি না পাওয়া মুক্তিযোদ্ধা ভিক্ষুক নসুর জীবন-যাপন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার চৌডালা ইউনিয়নের বাঘমারা গ্রামের নসু। ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনী যখন বাঙ্গালীর উপর নির্মম অত্যাচার চালাই ঠিক তখনই অশিক্ষিত নসু দেশ ও দেশের মানুষ কে পাক বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা করার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে ঝাপিয়ে পড়েন মুক্তিযুদ্ধে।
মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারন করতে গিয়ে অসহায় নসু বলেন আমি ৭ নং সেক্টরে লেফটেন্যান্ট কর্নেল কাজী নুরুজ্জামান এর নেতৃত্বে যুদ্ধ করি।১৯৭১ সালে দেশকে শত্রুমুক্ত করার জন্য জীবনের মায়া ত্যাগ করে যুদ্ধে যেতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়ি। সাহাপুর মুক্তিযুদ্ধ ক্যাম্পে যাওয়ার জন্য নৌকায় চড়ে বসলাম।পথিমধ্যে হানাদার বাহিনী লক্ষ্য করে গুলি চালালে নৌকায় শুয়ে কোন মতে প্রানে বেঁচে ক্যাম্পে পৌছালে সেখানেও অনেক প্রশ্নের মুখামুখির পর ইন্ডিয়া আদমপুর প্রাথমিক ট্রেনিং সেন্টারে ক্যাপ্টেন পানুয়ার কাছে মাস ব্যাপি ট্রেনিং করি। ঘটনাক্রমে রাজাকারদের সাথে যুদ্ধ চলাকালে আমি ওসহযোদ্ধারা জামবাড়িয়া মাঠে একত্রিত হলে সেখানে বীর শ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সেখানে এসে উপস্থিত হলে আমাদের সকলকে যুদ্ধের কিছু কলাকৌশল শিখিয়ে দেয়।
মুক্তিযুদ্ধের স্বীকৃতি না পাওয়ার ব্যপারে জানতে চাইলে, কেন মুক্তিযুদ্ধের স্বীকৃতি পাননি তা তিনি বলতে পারেন না।সহযোদ্ধা হাফিজউদ্দিন, রিয়াজউদ্দিন বলেন আমরা একসাথে ট্রেনিং ও যুদ্ধ করেও তিনি কেনমুক্তিযুদ্ধের স্বীকৃতি পেলনা তা জানি না।উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও বর্তমান চৌডালা ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এরফান আলি (চুটু মাস্টার) বলেন, সে আমার সাথেই ট্রেনিং ও যুদ্ধ করেছে আমি যখন জানতে পারি সে মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে গেজেট ভুক্ত হয়নি তারপর অনেক চেস্টা করেও তার স্বীকৃতি টা এনে দিতে পারিনি। সে এখন খুব মানবতার জীবন যাপন করছে।
সরজমিন গিয়ে দেখা যায় মুক্তিযুদ্ধা নসুর মাথা গোজার কোন ঠাঁই নেই। নেই কোন ভিটা মাটি, খাস জমির উপর শুয়ে থাকে বাঁশের তৈরি অগোছালো বিছানায়। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ অসুস্থতায় ভুগছেন অর্থের অভাবে চিকিৎসা করতে পারেন না।চলাফেরা করতে না পারায় জীবন জীবিকা নিয়ে খুব কস্টে দিন পার করছেন।
শেষ জীবনে এসে একটাই আশা যে তিনি শেখ মুজিবুরের ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে দেশ স্বাধীন করেছেন। বতর্মানে তারই সুযোগ্য কন্যা দেশ রতœ শেখ হাসিনা ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আকুল আবেদন যে তার আত্মত্যাগের মূল্যায়ন করে তার মানবতার জীবন যাপন থেকে মুক্তি দিবে।

Share Button