মাশরাফি বিন মুর্তজা। ফাইল ছবি

বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপে মাশরাফি বিন মুর্তজার খেলা নিয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো খবর এখনও আসেনি। টুর্নামেন্টের মাঝপথে ডানহাতি এই পেসারকে পেতে ত্রিমুখী লড়াই শুরু হয়ে গেছে। দীর্ঘদিন ক্রিকেটের বাইরে থাকলেও মাশরাফির জন্য বিসিবির কাছে আবেদন করেছে ফরচুন বরিশাল, জেমকন খুলনা। অনুশীলনের আগে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীও আনুষ্ঠানিকভাবে জানালো, তারাও পেতে পায় বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ককে। বিসিবিকে চিঠি দিয়েছে দলটি। একাধিক দলের আগ্রহ থাকায় লটারির মাধ্যমে নির্ধারণ হতে পারে মাশরাফির দল।

রাজশাহীর ম্যানেজার হান্নান সরকার গতকাল সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমাদের যেটা কাজ যে তার (মাশরাফি) জন্য আবেদন করা বা তার জন্য প্রসেসের মাঝে ঢুকা সেই প্রসেসের মাঝে আমরা ঢুকেছি। বাকিটা ক্রিকেট বোর্ডের মাধ্যমে আমরা জানতে পারব সময়ের সঙ্গে সঙ্গে।’

পাঁচ ম্যাচে দুটি জয় রয়েছে রাজশাহীর। ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই সাইফউদ্দিনকে পাচ্ছে না রাজশাহী। অভিজ্ঞ মাশরাফি দলটির জন্য বড় শক্তি হবে বলেই মনে করেন হান্নান সরকার। গতকাল তিনি বলেছেন, ‘মাশরাফি যে কোনো দলের জন্য বড় একটা শক্তি। একজন খেলোয়াড় হিসেবে একজন সিনিয়র খেলোয়াড় বা অধিনায়ক হিসেবে পাশাপাশি মাশরাফি যদি দলে থাকে সেই দলের জন্য বড় শক্তি হিসেবেই কাজ করবে। সেটা প্রতিপক্ষে থাকলে স্বাভাবিকভাবে আমাদের উপর একটা চাপ থাকবে।’

মিরপুরের স্লো, লো বাউন্সের উইকেটে বল করে অভ্যস্ত মাশরাফি। এই উইকেটে তার অভিজ্ঞতা যে কোনো দলের জন্যই সহায়ক হবে। রাজশাহী সেদিকেই চোখ রাখছে। হান্নান সরকারের আশা নিজের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারবেন মাশরাফি।

Share Button