[ নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ]

দুই মাস পর রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তিন তলার নিজের দফতরে বসেন। কুশল বিনিময় করেন অফিস কর্মীদের সাথে। তাদের শারীরিক অবস্থা,পরিবারের খোঁজ-খবর নেন তিনি।সুস্থ হয়ে তার দফতরে ফেরায় অফিস কর্মীদের মধ্যে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। খবর পেয়ে নেতা-কর্মীরা অনেকে ছুটে যান তাদের প্রিয় রিজভীকে দেখতে।

পরে সাংবাদিকদেরকে রিজভী বলেন, আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের রহমতে আমি সুস্থ হয়েছি। আমার সুস্থতার জন্য দেশে-বিদেশে কর্মী-সমর্থকসহ দেশবাসী দোয়া করেছে, মিলাদ পড়েছেন, রোজা রেখেছেন, প্রার্থনা করেছেন আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। সৃষ্টিকর্তা সবাইকে সুস্থ রাখুন, হেফাজতে রাখুন। রিং পরানোর পর আমাকে অনেক সর্তকতার সাথে চলতে হচ্ছে। এখন নিয়মিত অফিসে আসার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

একজন নেতা জানান, রিজভী না থাকার কারণে গত দুই মাস নিষ্প্রাণ ছিল দলীয় কার্যালয়।

প্রসঙ্গত,সর্বশেষ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব নয়া পল্টনে অফিস করেন গত ১২ নভেম্বর। এর পরদিন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের একটি মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে নিজের গাড়িতে উঠার পরই হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। এরপর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন রিজভী। গত ২১ নভেম্বর তার হৃদযন্ত্রে এনজিওপ্লাস্টের মাধ্যমে রিং পরানো হয়। চার দিন পর সুস্থ হয়ে তিনি মোহাম্মদপুরের বাসায় ফেরেন।

গত ৩ ডিসেম্বর রিজভীর সহধর্মিণী আরজুমান আরা বেগম ও শ্যালিকা তাহমিনা বেগমের করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ আসে। স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কারণে বর্তমানে তিনি আরেকটি বাসায় আছেন।

রিজভী জানান, তার সহধর্মিণী ও শ্যালিকা সুস্থ আছেন, তেমন কোনো উপসর্গ নেই। চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে আছেন তারা।

Share Button