[প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। ছবি: সংগৃহীত]

বাংলাদেশ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের মূল নেতা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

বৃহস্পতিবার রাতে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র থেকে যোগ দিয়ে এক ওয়েবিনারে তিনি বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস বাংলাদেশ আসন্ন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে অন্যতম প্রধান নেতা হতে চলেছে। আমরা কেবল আশা করি না বরং আমরা পরিকল্পনা করি এবং আমরা বাংলাদেশ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের অন্যতম প্রধান নেতা হওয়ার বিষয়ে আকাঙ্খা পোষণ করছি।’

আইসিটি বিভাগ ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০২০-এর অংশ হিসাবে ‘এমব্রেইসিং ডিজিটাল টেকনোলজিস ইন নিউ নর্ম’ শীর্ষক এ ওয়েবিনারটি আয়োজন করে।

জয় বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি এটি সম্পূর্ণ সম্ভব। এটি কেবল স্বপ্ন নয়, এটি সম্ভব। আমরা জানি না পরবর্তী বড় প্রযুক্তিগুলো কী কী হতে চলেছে। তবে, আমি প্রতিশ্রুতি দিতে পারি যে এর মধ্যে কয়েকটি প্রযুক্তি বাংলাদেশ থেকে আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের সক্ষমতা আছে। আমরা প্রমাণ করতে পেরেছি যে আমরা এটি করতে পারি। আমরা এখন ভবিষ্যতের প্রযুক্তির পরবর্তীর্ চ্যাপ্টার এবং ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে আছি।’

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, বাংলাদেশ অন্যান্য দেশ থেকে প্রযুক্তি আনার পরিবর্তে এখন পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তি উদ্ভাবন করতে চায়। আমরা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের উৎসাহের কেন্দ্র গড়ে তুলছি। আমরা কেবল অন্যের প্রযুক্তির উপর নয়, গবেষণার দিকে মনোনিবেশ করছি। আমরা পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তির অন্যতম নেতা হতে চাই। এ বিপ্লবে নেতৃত্ব দিতে সরকার আইসিটি খাতের উন্নয়নের জন্য কিছু লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই, ব্লকচেইন, ইন্টারনেট অফ থিংস, ন্যানো প্রযুক্তি, বায়োটকনোলজি, রোবোটিকস ও মাইক্রোপ্রসেসর এবং সফ্টওয়্যার ডিজাইনিংয়ের ওপর গুরুত্ব দিচ্ছি।’

সাইবার সুরক্ষা অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের নতুন সাইবার সুরক্ষা আইন আছে। আমরা সাইবার সিকিউরিটি সেল এবং জাতীয় মনিটরিং সেল স্থাপন করছি। এই সব উদ্যোগ আমাদের দেশে অনলাইন সুরক্ষা নিশ্চিত করবে।’

জয় বলেন, কোভিড-১৯ মহামারী চলাকালীন আইসিটি খাত অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে ওয়েবিনারে মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং বিভিন্ন দেশের আইসিটি বিষয়ক মন্ত্রীগণ এতে যোগ দেন। বাসস।

Share Button