[ছবি : সংগৃহীত]

পুরোনাম সৈয়দা মনি চৌধুরী, তবে মনি চৌধুরী নামেই তিনি বেশি পরিচিত। পেশায় একজন চিকিত্সক হলেও সম্প্রতি তিনি অভিনয়ে পা রেখেছেন। গত নভেম্বরে তিনি দীপু হাজরা পরিচালিত ৩টি নাটকে অভিনয় করেন। নাটকগুলো হচ্ছে ‘অরূপার গল্প’, ‘গেম অব লাইফ’ ও ‘সেদিন কি ঘটেছিল’। অভিনয়ের পাশাপাশি ঝোঁক রয়েছে অনুষ্ঠান উপস্থাপনারও।

একুশে টেলিভিশনের স্বাস্থ্যবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘হেলদি লাইফ’-এর তিনি নিয়মিত উপস্থাপক। বাবা সৈয়দ আ. সালাম চৌধুরী একজন সরকারি কর্মকর্তা ছিলেন এবং মা নাছিমা চৌধুরী গৃহিনী। তাদের চার সন্তানের মধ্যে মনি সবচেয়ে বড়। মনির ব্যাপারে বাবা মায়ের সব সময় স্বাধীনতা ছিল। তারা জানতেম—মেয়ে যে বিষয়েই যাক না কেন অবশ্যই ভালো কিছু করবেই। তাই মনিও তার আন্তরিক চেষ্টায় আজ একজন প্রতিষ্ঠিত চিকিত্সক। আর নিজের শখের জায়গাটা পাকাপোক্ত করতেই শুরু করলেন নতুন ইনিংস, আর তা হলো অভিনয়।

প্রথম ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানোর অভিজ্ঞতা সম্পর্কে মনি বলেন, ‘প্রথমে বেশ নার্ভাস ছিলাম। কিছুটা ভয়ও কাজ করছিল। কিন্তু দীপু ভাই অভয় দিলেন, বেশ সাহায্য করলেন তখন আর সমস্যা হয়নি।’ মনির শুরুটা ২০০১-২০০২ সালে ‘নতুন কুঁড়ি’তে গান, কবিতা ও আবৃত্তি দিয়ে। শুরুতে বেশ শক্ত অনুশীলন ছিল বলেই হয়তো অভিনয়ে খুব বেশি বেগ পেতে হয়নি।

তিনি বলেন, ‘সব সময় ভালো কাজের অনুপ্রেরণা আমার পরিবারের কাছ থেকেই পেয়েছি। তাই তো খুব সহজে এই কাজটি করতে পারছি।’

তবে তার কাছে সবার আগে মানুষের চিকিত্সা, তারপর অন্যসব। ভবিষ্যতে নিজেকে কোন জায়গায় দেখতে চান? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে নিজেকে একজন ভালো অভিনেত্রী হিসাবে দেখতে চাই।’

Share Button