আড়ানী পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর পক্ষে মনোনয়ন জমা দিচ্ছেন নেতৃবৃন্দ।

আসন্ন আড়ানী পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন রবিবার বিএনপি থেকে একক প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিলেও সরকারি দল আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভক্তি দেখা দিয়েছে। আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় প্রার্থীর বাইরে আরো দুই বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে আড়ানী বাজারে মানববন্ধন করে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১৬ জানুয়ারি আড়ানী পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকারি দল আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চেয়ে ছিলেন আটজন। এর মধ্যে দলীয়ভাবে মনোনয়ন পেয়েছেন আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ছাত্র নেতা শহিদুজ্জামান সাইদ। তার সঙ্গে রবিবার মনোনয়ন জমা দেন উপজেলা ও আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকসহ বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের অধিকাংশ নেতৃবৃন্দ।

এদিকে সাইদের মনোনয়ন পাওয়াকে মেনে নিতে পারেননি বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী ও তরুণ ছাত্রলীগ নেতা রিবন আহমেদ বাপ্পী। রবিবার মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন সকালে মুক্তার আলীর লোকজন আড়ানী বাজারে দলীয় প্রার্থী শহিদুজ্জামান সাইদের মনোনয়ন বাতিল করে মুক্তারকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবিতে রেখে মানববন্ধন করেন। এরপর দুপুরে অসংখ্য নেতাকর্মীকে সঙ্গে করে উপজেলা রিটারিং অফিসার ও নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজার হাতে মনোনয়ন জমা দেন।

এদিকে বিএনপি থেকে তিনজন মনোনয়ন উত্তোলন করলেও শেষ পর্যন্ত জমা দিয়েছেন দলীয় প্রার্থী তুজাম্মেল হক।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার মজিবুল আলম জানান, আড়ানী পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন রবিবার বিকেল পর্যন্ত মোট ৪৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে মেয়র পদে চারজন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৯ জন এবং নারী কাউন্সিলর পদে ১০ জন।

Share Button