[ ছবি: সংগৃহীত]

যুক্তরাজ্যে ছড়িয়ে পড়া নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা ভাইরাসে শঙ্কা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। এ নিয়ে লন্ডন ও দক্ষিণপূর্ব ইংল্যান্ডে কঠোর লকডাউন আরোপ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে দেশজুড়ে জারি করা হয়েছে নানা বিধিনিষেধ।

নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা সংক্রমণ ছড়ায় নেদারল্যান্ডস, বেলজিয়াম, আয়ারল্যান্ড, জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে।

সর্বশেষ কানাডাও দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। একইসঙ্গে দক্ষিণ আমেরিকা, আর্জেন্টিনা, চিলি এবং কলম্বিয়া যুক্তরাজ্য থেকে সরাসরি সমস্ত ফ্লাইট স্থগিত করেছে।

এছাড়া বিভিন্ন দেশ দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল বন্ধের কথা ভাবছে।

যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক সতর্ক করে জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের নতুন যে ধরন শনাক্ত হয়েছে তা মোটেই নিয়ন্ত্রণে নেই। তিনি সবাইকে কঠোর বিধিনিষেধ মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন।

এদিকে সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, রবিবার দেশটিতে রেকর্ড ৩৫ হাজার ৯২৮ জন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এছাড়া নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা ছড়িয়ে পড়ায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বে সোমবার জরুরি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে।

নতুন নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনা নিয়ে ব্রিটিশ গবেষকরা জানান, এটি যে আগেরটির চেয়ে অনেক বেশি প্রাণঘাতী সেরকম প্রমাণ তারা পাননি।

তবে যেটি গবেষকদের অবাক করেছে, তাহলো এই নতুন করোনা ভাইরাস আগেরটির চেয়ে ৭০ শতাংশ বেশি হারে ছড়াচ্ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও উদ্বেগ প্রকাশ করে বলছে, এই নতুন করোনা ভাইরাস এখন নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক এবং অস্ট্রেলিয়াতেও নাকি পাওয়া গেছে। বিবিসি, সিএনএন

Share Button