করোনা মোকাবেলা ও দেশের ক্ষুদ্র অর্থনীতি চাঙা করতে পাঁচ কোটি ডলার অতিরিক্ত অর্থায়ন অনুমোদন করবে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৪২৫ কোটি টাকা। করোনায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড পুনরুদ্ধারে এই ঋণ অনুমোদন করেছে বাংলাদেশের অন্যতম এই উন্নয়ন সংযোগী সংস্থা।

সোমবার নগরীর অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে বাংলাদেশ সরকার ও এডিবির মধ্যে এই ঋণ চুক্তি সই হয়। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ চুক্তিতে সই করেন।

চলতি ‘মাইক্রো এন্টারপ্রাইজ ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় বাড়তি অর্থায়ন করেছে এডিবি। প্রকল্পটি ২০১৮ সালে অনুমোদন করা হয়। একটি উন্নয়নমূলক উন্নয়ন ও পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনকে (পিকেএসএফ) পাঁচ কোটি ডলার দেবে এডিবি। চলমান প্রকল্পের আওতায় পিকেএসএফ, তার অংশীদার সংগঠনের মাধ্যমে এখনো পর্যন্ত ৩৯ হাজার ৫৮০টি ক্ষুদ্রঋণ দিয়েছে, যা গ্রামাঞ্চলে ৯১ হাজার ৪৩০টি কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে। এই অতিরিক্ত অর্থায়ন গ্রামীণ অর্থনীতি আরো চাঙা করবে। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাকে সহায়তা করার পাশাপাশি তাদের ব্যবসা চালিয়ে যেতে এবং তাদের কর্মীদের ধরে রাখতে সহায়তা করবে।

 বিশেষত নারী মহাজন করোনায় বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দাবি করে মনমোহন প্রকাশ বলেন, প্রকল্পটি ক্ষুদ্র সংস্থাগুলোর অর্থায়নের প্রবেশাধিকার বাড়াবে এবং দেশে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা বাড়াতে আরো অবদান রাখবে। নতুন অর্থায়নের মাধ্যমে ৩০ হাজার ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী উপকৃত হবে বলে আশা করে এডিবি।
Share Button