ছবি : সংগৃহীত।

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে নুতন ভিন্নরূপী ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে ৮৩ জন। এই সংক্রামণের পরপরই সিডনির ২লাখ ৫০ হাজার জনগণকে ঘরে থাকার নির্দেশ এসেছে দেশটির সরকার পক্ষ থেকে।

নুতন এই আগ্রাসী ভাইরাসের উৎস বা উৎপত্তিস্থল কোথায়, তা এখনো অজানা, তবে, কর্মকর্তারা একজন ফ্লাইট সদস্যকে সন্দেহ করছেন, যিনি সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র থেকে সিডনিতে ফেরেন।

‘দ্য অস্ট্রেলিয়ান ক্যাপিটাল টেরিটরি’ (এসিটি) সিডনির বাসিন্দাদের দেওয়া এক কঠোর বার্তায় বলেছে, ‘আমাদের এখানে এসো না’। যদি তারা আসে তবে অবশ্যই ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রতিটি রাজ্য ও অঞ্চলের সীমান্তে স্বাস্থ্যবিধি জোরদার করা হয়েছে। সিডনি ও মেলবোর্ন থেকে বহু ফ্লাইট বাতিল করে হয়েছে। এবং বড় বড় শহরগুলিতে পুনরায় নুতন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

আর সিডনির যে এলাকায় নতুন ক্লাস্টারটি দেখা দিয়েছে সেখানকার মানুষের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। দ্বীপরাজ্য তাসমানিয়া শনিবার থেকে একই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এবিসি নিউজ।

Share Button