ক্রিকেটার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ফাইল ছবি

তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্ট খেলতে আগামী ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশ সফরে আসছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। করোনার কারণে প্রায় ১০ মাসের বিরতির পর এই সিরিজ দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবে বাংলাদেশ দল। ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে আসন্ন হোম সিরিজে ওয়ানডেতে বাংলাদেশকেই ফেভারিট বলছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখছেন এই তরুণ পেস বোলিং অলরাউন্ডার। আগামী ২০, ২২ জানুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ও ২৫ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের তিন ওয়ানডে।

একদিনের ক্রিকেটে দুই দলের লড়াইটা গত কয়েক বছরে বেশ উপভোগ্য হয়ে উঠেছে। সেটাও বাংলাদেশের দাপটের কারণে। দুই দলের লড়াইয়ে ৩৮ ম্যাচে এখনও এগিয়ে উইন্ডিজরা। বাংলাদেশের জয় ১৫টি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২১টি। বাংলাদেশের মাটিতে ১৭ ম্যাচে ক্যারিবিয়ানরা জিতেছে ১০টি, বাংলাদেশ ৬টি। যদিও এই পরিসংখ্যানকে ছাপিয়ে যাবে গত দুই বছরে টাইগারদের সাফল্য। শেষ ৫ ওয়ানডেতে উইন্ডিজদের কাছে হারেনি বাংলাদেশ। ৮ ম্যাচেও হার মাত্র একটি।

সাইফউদ্দিনকে বিশ্বাস যোগাচ্ছে গত দুই বছরের রেজাল্টই। বুধবার মিরপুর স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে তরুণ এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘অবশ্যই আমাদের জন্য ভালো একটা সুযোগ। কারণ গত কয়েকবার দেখায় দেশে আয়ারল্যান্ড সিরিজ এবং বিশ্বকাপ সবজায়গায় আমরা ওদেরকে হারিয়েছি ভালোভাবেই। তো আমাদের জন্য এটা একটা চ্যালেঞ্জ। যেহেতু ঘরের মাটিতে খেলা তাই আমরা একটা বাড়তি সুবিধা পাব। আমরা আশাবাদী আমরা ফেভারিট।’

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশ দলের অপরিহার্য সদস্য সাইফউদ্দিন। কার্যকর পেস বোলিংয়ের সঙ্গে ব্যাটিংটাও পারেন তিনি। যদিও এখন লিগামেন্টের ইনজুরির কারণে তিন সপ্তাহের রিহ্যাবে আছেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে গত দুই বছরে ভিন্ন ভিন্ন কন্ডিশনে হারানোর স্মৃতি আছে বাংলাদেশের। ঘরের মাঠে, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে, আয়ারল্যান্ডে এমনকি ইংল্যান্ডেও টাইগাররা হারিয়েছে তাদেরকে।

নিজের মন্তব্যের সপক্ষে সংবাদমাধ্যমের কাছে সেই যুক্তিও তুলে ধরেছেন ২৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। সাইফউদ্দিন বলেছেন, ‘সব জায়গায় বিশ্বকাপে বা ত্রিদেশীয়তে দেশের বাইরে (আয়ারল্যান্ড) যেটা প্রথমবারের মতো জিতলাম, এমনকি আমরা ২০১৮ তে হোম সিরিজ খেললাম। তিনবার দেখায় আমরা জিতেছি, তাও আবার তিন কন্ডিশনে। বাংলাদেশের কন্ডিশনে, আয়ারল্যান্ডে এবং বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডে। এটা মনে করেই আমি ফেভারিট বললাম।’

ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে তামিম ইকবালের অভিষেক সিরিজে সাইফউদ্দিনের আশাবাদই বাস্তবে ধরা দিক, ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য এটিই হবে টাইগারদের পক্ষ থেকে নতুন বছরের বড় উপহার।

Share Button