এমপি পাপুল ও তার স্ত্রী এবং মেয়ে। ছবি: সংগৃহীত

দুর্নীতির মামলায় এমপি পাপুলের স্ত্রী সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা ইসলাম ও তার মেয়ে ওয়াফা ইসলাম আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন।

রবিবার ঢাকার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েসের আদালতে তারা আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাদের জামিন মঞ্জুর করা হয়।

গত ২২ ডিসেম্বর বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে তারা আগাম জামিন চাইতে গেলে তাদের ২৮ ডিসেম্বরের মধ্যে আত্মসমর্পণের আদেশ দেন উচ্চ আদালত। সে অনুযায়ী রবিবার বিকালে তারা আত্মসমর্পণ করেন।

এর আগে পাপুল ও তার স্ত্রী সেলিনা ইসলাম তার মেয়ে ওয়াফা ইসলাম ও শ্যালিকার ৬১৭টি ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ এবং ৯২টি তফসিলভুক্ত স্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দেন একই আদালত।

দুদকের আইনজীবী মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর বলেন, দুদক তাদের হিসাব জব্দের আবেদন করে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক ব্যাংক হিসাবগুলো জব্দের নির্দেশ দেন।

এরই প্রেক্ষিতে পাপুলের ১৪৮টি, স্ত্রী সেলিনা ইসলামর ৩৪৫টি, মেয়ে ওয়াফা ইসলামের ৭৬টি ও শ্যালিকা জেসমিন প্রধানের ৪৮টি ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়।

মানব ও অর্থ পাচারের অভিযোগে চলতি বছরের গত জুনে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি পাপুলকে গ্রেফতার করে কুয়েতের সিআইডি। তিনি বর্তমানে দেশটির কারাগারে রয়েছেন।

Share Button