[প্রতিকী ছবি]

চুক্তি অনুযায়ী নির্ধারিত সময়েই করোনার টিকা পাবে বলে জানিয়েছেন বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) রাব্বুর রেজা।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়- ভারত আগে নিজেদের চাহিদা পূরণ করবে তারপর করোনার ভ্যাকসিন রপ্তানির উদ্যোগ নেবে।

এর পর সোমবার দুপুরে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের পক্ষ থেকে সিওও রাব্বুর রেজা জানান, আমাদের সঙ্গে তাদের (সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া) নিয়মিত যোগাযোগ আছে। আজো বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। আমরা নিশ্চিত, আমাদের সঙ্গে যেভাবে চুক্তি হয়েছে সে অনুযায়ী আমরা ভারত থেকে টিকা পাবো।

তিনি বলেন, আমরা ছয় মাসে তিন কোটি ডোজের চুক্তি করেছি। সেরাম ইতিমধ্যেই পাঁচ কোটি ডোজ বানিয়ে ফেলেছে। তাদের চাহিদার তুলনায় আমাদের চাহিদা সামান্য। সে ক্ষেত্রে টিকা প্রাপ্তিতে কোনো অসুবিধা হবে না।

তিনি আরো জানান, বেক্সিমকো ও সেরাম ইনস্টিটিউটের মধ্যে চুক্তি হয়েছে। সেই চুক্তিতে উল্লেখ রয়েছে, স্থানীয় অনুমোদনের পর (বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদন) সেরাম ইনস্টিটিউট এক মাসের মধ্যেই প্রথম ধাপের টিকা সরবরাহ করবে।

প্রসঙ্গত, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট ‘কোভিশিল্ড’ নামে করোনার টিকা তৈরি করেছে। এই টিকা কেনার জন্য গত ১৩ ডিসেম্বর সেরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যে চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী, মোট তিন কোটি ডোজ টিকা পাওয়ার কথা বাংলাদেশের।

Share Button