দুই বাসের প্রতিযোগিতা। ছবি: সংগৃহীত

গত বছরের জানুয়ারিতে সবচেয়ে বেশি ‍সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। আর তুলনামূলকভাবে কম দুর্ঘটনা ঘটেছে এপ্রিল ও মে মাসে। নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)-এর প্রতিবেদনে এ তথ্য ওঠে এসেছে।

বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে ২০২০ সালের সড়ক দুর্ঘটনার এ তথ্য তুলে ধরেন নিসচার প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন।

তিনি জানান, গত বছরের জানুয়ারি মাসে ৪৪৭ দুর্ঘটনায় ৪৯৫ জন নিহত এবং ৮২৩ জন আহত হন। অপরদিকে এপ্রিল ও মে মাসে তুলনামূলক কম দুর্ঘটনা ঘটেছে।

এই দুই মাসে দুর্ঘটনা কম হওয়ার পেছনের কারণ হিসেবে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, মহামারির কারণে লকডাউন থাকায় দুর্ঘটনা কম হয়েছে।

নিসচার প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ৩৬৫ দুর্ঘটনায় ৪৩৭ জন নিহত এবং ৭৬২ জন আহত, মার্চে ৩৭৯ দুর্ঘটনায় ৪৫৪ নিহত এবং ৭৬৭ আহত, এপ্রিলে ১৩২ দুর্ঘটনায় ১৩০ নিহত এবং ১২০ আহত, মে মাসে ১৯৬ দুর্ঘটনায় ২৪২ নিহত এবং ২০৬ আহত হয়েছেন।

এছাড়া জুনে ২৬০ দুর্ঘটনায় ৩৩০ জন নিহত এবং ২৩৩ জন আহত, জুলাইয়ে ২২০ দুর্ঘটনায় ২৮৪ নিহত এবং ১৯৭ আহত, আগস্টে ৩৪০ দুর্ঘটনায় ৪৮৩ নিহত ও ৪২৩ আহত, সেপ্টেম্বরে ২১৬ দুর্ঘটনায় ২৫০ নিহত ও ৪০৪ আহত, অক্টোবরে ২৩০ দুর্ঘটনায় ২৬২ নিহত ও ৩৮৭ আহত, নভেম্বরে ২৬২ দুর্ঘটনায় ৩১৬ নিহত এবং ৩৭২ আহত এবং ডিসেম্বরে ৩৬৩ দুর্ঘটনায় ৪৫৮ জন নিহত এবং ৩৯১ জন আহত হন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২০ সালে চার হাজার ৯২টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে চার হাজার ৯৬৯ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৫ হাজার ৮৫ জন। এর মধ্যে রেলপথ দুর্ঘটনায় ১২৯ জন নিহত ও ৩১ জন আহত হন। আর নৌপথ দুর্ঘটনায় ২১২ জন নিহত ও ১০০ জন আহত বা নিখোঁজ হন।

ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া, জাতীয় পত্রিকা, অনলাইন পোর্টালে, শাখা সংগঠনগুলোর রিপোর্ট এবং অপ্রকাশিত ঘটনার তথ্য থেকে এই পরিসংখ্যান তৈরি করা হয়েছে।

Share Button