চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। ছবি : সংগৃহীত।

বছরের শুরুতেই চীন সেনাবাহিনীকে যুদ্ধে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। চীনা প্রেসিডেন্টের এই নির্দেশ ঘিরে ফের ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনার ঢেউ উঠছে।

ভারত ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার বরাতে জানা যায়, হংকংয়ের এক সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী, জিনপিং তার দেশের বাহিনীকে যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। শি জিনপিং এক বিবৃতিতে বলেন, ‘যে কোনও মুহূর্তে যুদ্ধ বাঁধতে পারে। প্রস্তুত থাকুন’। প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রেসিডেন্ট নির্দেশ দিয়েছেন যাতে সেনাবাহিনী নিত্যনতুন অস্ত্র ব্যবহারের প্রশিক্ষণ দেয়। প্রশিক্ষণের আদব কায়দাও বদলের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। প্রয়োজনে বিভিন্ন বাহিনীকে একসঙ্গে ট্রেনিং করতে হবে বলে জানিয়েছেন জিনপিং।

জিনপিং শুধু সে দেশের প্রেসিডেন্ট বা কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান নন, ২০১২ সাল থেকে চীনা সেনা বাহিনীর কম্যান্ডার-ইন-চিফও। সেই সময় থেকেই সেনাবাহিনীর যুদ্ধকালীন প্রস্তুতির উপর জোর দিয়েছেন জিনপিং। উপরন্তু ২০২০ সালের মে মাস থেকে পূর্ব লাদাখ সীমান্ত নিয়ে ভারত-চিনের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। গালওয়ানে দু’দেশের জওয়ানদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষও হয়। দুই দেশেরই সেনা জওয়ানরা নিহত হন। তার পর একাধিকবার ভারতের জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে চীনের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে। কিন্তু ভারতীয় সেনার তৎপরতায় সেই চেষ্টা প্রতিহত হয়েছে তারা।

Share Button