আব্দুল মালেকের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক। ছবি: সংগৃহীত

অবৈধভাবে সম্পদের পাহাড় গড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালকের গাড়িচালক আব্দুল মালেকের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক।

 আব্দুল মালেকের স্ত্রীর নাম নার্গিস আক্তার। তাকে দুদক পরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে একটি দল মঙ্গলবার সকালে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

দুদক সূত্র জানায়, চলমান অনুসন্ধানে প্রাথমিকভাবে মালেক দম্পতির অস্বাভাবিক সম্পদের সন্ধান পেয়েছে দুদক। তার মধ্যে মালেকের প্রথম স্ত্রী নার্গিস আক্তারের নামে তুরাগ থানার দক্ষিণ কামারপাড়ায় দুটি সাততলা বিলাসবহুল ভবনের সন্ধান মেলে।

এছাড়া রাজধানীর ধানমন্ডির হাতিরপুল এলাকায় ৪.৫ কাঠা জমিতে একটি নির্মাণাধীন ১০ তলা ভবন এবং দক্ষিণ কামারপাড়ায় ১৫ কাঠা জমিতে একটি ডেইরি ফার্ম রয়েছে তার নামে। এছাড়াও বিভিন্ন ব্যাংকে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ অর্থ গচ্ছিত আছে বলেও জানা গেছে।

সামান্য একজন গাড়িচালক হয়েও সম্পদের পাহাড় গড়েন আব্দুল মালেক। শতকোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া এই লোকের এসব সম্পদ অবৈধভাবে অর্জন করা।

অভিযোগ রয়েছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সঙ্গে সখ্য তৈরি করে অন্তত শতাধিক লোকের নিয়োগ-পদোন্নতি-বদলি বাণিজ্য করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর থেকেই ড্রাইভার মালেকের উত্থান ঘটে। এরপর আস্তে আস্তে বনে যান অঢেল টাকা ও সম্পত্তির মালিক। ফলে বিলাসবহুল রাজকীয় জীবনযাপন শুরু করেন।

চলতি বছরের ২০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর তুরাগ থানাধীন কামার বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এ সময় তার কাছ থেকে বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিন, গুলি, দেড় লাখ জাল বাংলাদেশি টাকা, ল্যাপটপ ও একটি মোবাইল উদ্ধার হয়।