[পবিত্র হজ যাত্রায় মুসুল্লিরা। ছবিটি করোনা মহামারির আগে তোলা।]

হজ ও ওমরা ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন করতে যাচ্ছে সরকার। এই আইনে হজ ও ওমরা ব্যবস্থাপনার সার্বিক দায়িত্ব থাকবে সরকারের ওপর।

সোমবার মন্ত্রিসভার ভার্চুয়াল বৈঠকে ‘হজ ও ওমরা ব্যবস্থাপনা আইন ২০২০’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, এতদিন হজ ব্যবস্থাপনা চলত একটি নীতিমালার মাধ্যমে। নীতিমালার মাধ্যমে চলার কারণে অনেক সময় ব্যবস্থা নিতে অসুবিধা হত। আর ব্যবস্থা নিলে সংশ্লিষ্টরা হাইকোর্টে গিয়ে স্থগিতাদেশ নিয়ে আসত।

নতুন আইনে হজ ও ওমরা ব্যবস্থাপনার সার্বিক দায়িত্ব সরকারের ওপর ন্যস্ত থাকবে বলে জানান সচিব।

তিনি বলেন, আইনের অধীনে নিবন্ধন ছাড়া কাউকে ওমরা বা হজে কেউ পাঠাতে পারবে না। এছাড়া হজের চুক্তি পর কেউ যদি সৌদিতে গিয়ে ঠকায় তাহলে আইন অনুযায়ী সেই এজেন্সির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারবে বাংলাদেশ।

এছাড়া হজ ও ওমরা এজেন্সিগুলো অনিয়ম করলে তাদের নিবন্ধন বাতিলসহ জরিমানা করা হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বলেন, অনিয়মের জন্য পর পর দুই বছর ওয়ার্নিং দেওয়া হলে দুই বছরের জন্য লাইসেন্স বাতিল হবে।