পোষা কুকুরবিড়ালের দেহে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে তাদেরও পরীক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের মেট্রোপলিটন সরকার। একটি পোষা বিড়ালের দেহে প্রথমবারের মতো করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার কয়েক সপ্তাহ পরে কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেয়

সিউলের রোগ নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক একজন কর্মকর্তা পার্ক ইয়োমি ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জানান, কোনো পোষা কুকুর বা বিড়ালের জ্বর কিংবা শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা দেখা দিলেই কেবল তাদের করোনা টেস্ট করা হবে। ফল পজিটিভ হলে পোষা প্রাণীদের আইসোলেশন সেন্টারে না পাঠালেও চলবে। তবে বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে রাখার পরামর্শ বিশেষজ্ঞের। তবে মানুষ এবং পোষা প্রাণীর মধ্যে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কোনো প্রমাণ এখনো পাওয়া যায়নি বলেও নিশ্চিত করেন তিনি

পার্ক ইয়োমি আরও জানান, কুকুর বা বিড়ালের মালিক যদি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে থাকেন বা করোনা সংক্রমিত প্রাণিকে দেখাশোনা করতে না পারেন, তবেই তার পোষা প্রাণীকে আইসোলেশন সেন্টারে রাখা যাবে। তিনি পোষা প্রাণীদেরকে মানুষের কাছ থেকে অন্তত দুই মিটার দূরে রাখার কথা জানিয়ে সিউলের বাসিন্দাদের সতর্ক করে দিয়েছেন।