ছবিঃ সংগৃহীত

বেলুচিস্তানের গাওয়াদার বন্দরের নিকটে একটি বিমানবন্দর উন্নয়নের জন্য অর্থায়ন করছে চীন।মধ্য প্রাচ্য থেকে ভারতীয় উপকূলে তেল সরবরাহের লাইন বিঘ্নিত করার জন্য এমনটা করছে শি জিনপিংয়ের দেশ।

সূত্র জানায় এই বিমানবন্দর চীনকে ইরানের চাবাহার বন্দরে নজর রাখতে সহায়তা করবে যেখানে ভারত উন্নয়নের জন্য ১৪০ মিলিয়ন ডলার ঘোষণা করেছে। তারা জানান, চলতি বছরের জানুয়ারিতে শুরু হয়েছিল এয়ারবেসটির নির্মাণ কাজ এবং প্রকল্পটি ডিসেম্বরের শেষের দিকে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানান হয়। নির্মাণাধীন গওয়াদার বিমানবন্দরটি ভারী সামরিক পরিবহণ বিমান অবতরণের জন্য নকশা করা হয়েছিল।

চীনের এই পদক্ষেপের লক্ষ্য শুধুমাত্র ভারত তামিলনাড়ুর তানজাবুরের সুখোই ঘাঁটির কার্যক্রম পাল্টানো। থানজাবর বিমানঘাঁটিটি সাধারণত ভারত মহাসাগরে টহল দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়। এই ঘাটিটি চীন সহ উপসাগরীয় দেশসমূহের ব্যবসায়িক পণ্য সরবরাহের পথে যুদ্ধবিমান দিয়ে টহল দিয়ে থাকে।

 ২০১৫ সালে পাকিস্তানে ৪৬ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা করেছিল চীন, যার মধ্যে বেলুচিস্তান একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোর (সিপিসি) এর মাধ্যমে চীন পাকিস্তান এবং এশিয়ার অন্যান্য দেশগুলিতে তার আধিপত্য বাড়াতে চায় এবং এইভাবে আমেরিকা ও ভারতের সাথে প্রতিযোগিতা করতে চায় চীন।