নেপালের ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে জাতীয় ফুটবল দলের অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হচ্ছে আজ থেকে। তবে এদিন খেলোয়াড়রা টিম হোটেলে কেবল জিম ও সুইমিং করবেন। আগামীকাল থেকে তারা মাঠের অনুশীলন শুরু করবেন। এর আগে ক্যাম্পে ডাক পাওয়া জাতীয় দলের ২৪ ও অনূর্ধ্ব-২৩ দলের স্ট্যান্ডবাই ৭ জনসহ মোট ৩১ ফুটবলারের মধ্যে গতকাল কোচ জেমি ডে’র কাছে রিপোর্ট করেছেন ২৭ জন। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া কলকাতায় থাকায় অনুশীলন ক্যাম্পে রিপোর্ট করতে পারেননি। এছাড়া রিপোর্টিংয়ে উপস্থিত ছিলেন না মিডফিল্ডার মো. আবদুল্লাহ, গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা ও আনিসুর রহমান জিকো। এই তিনজন আজ ক্যাম্পে যোগ দেবেন বলে জানায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। সব ফুটবলারকে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করিয়েই ক্যাম্পে উঠতে হচ্ছে। ক্যাম্প চলাকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ও কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে হবে জাতীয় দলের অনুশীলন।
আগামী ২৩ মার্চ নেপালের কাঠমান্ডুতে শুরু হবে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের খেলা। এ আসরে অংশ নিতে ১৮ মার্চ নেপালের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বে জাতীয় ফুটবল দল। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ ও স্বাগতিক নেপালের জাতীয় দল খেললেও কিরগিজস্তানের অলিম্পিক দল (অনূর্ধ্ব-২৩) খেলছে। রাউন্ড রবিন লিগে তিন দল পরস্পরের বিপক্ষে একটি করে ম্যাচ খেলবে। প্রতি দলের দু’টি করে ম্যাচ শেষে শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনালে। লিগ ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে ২৩, ২৫ ও ২৭ মার্চ। যদিও আয়োজক অল নেপাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (আনফা) খেলার সূচি এখনও চূড়ান্ত করেনি। কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের ফাইনাল ২৯ মার্চ।