ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লো

জাপান সাগরে দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) ক্ষেপণাস্ত্র দুটি ছোড়া হয় বলে জানিয়েছে এবিসি নিউজ

জানা যায়, জো বাইডেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের পর এটিই উত্তর কোরিয়ার প্রথম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব অনুযায়ী, উত্তর কোরিয়াকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্রকে হুমকিস্বরূপ অস্ত্র হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

জাপানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাদের জলসীমার মধ্যে কোনো ধ্বংসাবশেষ পড়েনি।

টোকিওর দুই কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দ্য গার্ডিয়ান জানায়, উত্তর কোরিয়ার পূর্ব উপকূল থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে এবং তা জাপানের বিশেষ নিরাপত্তা অঞ্চলের বাইরে সাগরে পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর আগে গত রবিবার সকালে এ দু’টি ক্ষেপণাস্ত্র দক্ষিণ কোরিয়ার পশ্চিম উপকূল থেকে নিক্ষেপ করে উত্তর কোরিয়া। এগুলো ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বার্তা সংস্থা ইয়োনহাপ জানায়, ক্ষেপণাস্ত্র দু’টি স্বল্প দূরত্বে পশ্চিমাঞ্চলীয় জলসীমায় গিয়ে পড়ে। ২০২০ সালের ১৪ এপ্রিলের পর তারা এই প্রথম পরীক্ষামূলকভাবে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লো। ওই সময় দক্ষিণ কোরিয়া পূর্বাঞ্চলীয় জলসীমায় স্বল্প পাল্লার বহুমুখী ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দক্ষিণ কোরিয়ার একজন সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ইয়োনহাপ পরিবেশিত খবরে বলা হয়, এর ফলে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব লঙ্ঘিত হয়নি। কেননা, নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবে পিয়ংইয়ংয়ের ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো নিষিদ্ধ করা হয়।

দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র ৮ থেকে ১৮ মার্চ পর্যন্ত তাদের বার্ষিক বসন্তকালীন সামরিক মহড়া চালানোর পর দক্ষিণ কোরয়িা এ দুই ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালালো