করোনায় আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গতকাল মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় তাকে আরও থেকে দিন হাসপাতালে থাকতে হবে।

আজ বুধবার (২৮ এপ্রিল) বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসক দলের সদস্য অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, খুব বেশি হলে আরও ২-৩ দিন হাসপাতালে থাকতে হবে তাকে। এরপর তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া যাবে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ম্যাডামের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। নানা পরীক্ষার সুবিধার্থেই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে গত ১৫ এপ্রিল এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যান করা হয়। এরপর তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা জানান, সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট ভালো।

গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ১৬ দিন পর বিএনপি চেয়ারপারসনের করোনার দ্বিতীয় পরীক্ষার রিপোর্টও ‘পজিটিভ’ আসে।

গত ২৪ এপ্রিল রাত ১টার দিকে গণমাধ্যমকে বেগম জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিক্যাল টিমের প্রধান অধ্যাপক ডা. এফ এম সিদ্দিকী জানান, খালেদা জিয়ার দ্বিতীয় পরীক্ষার রিপোর্টও ‘পজিটিভ’ এসেছে। তবে তার শারীরিক অবস্থা ভালো। ফুসফুসে কোনও জটিলতা নেই। আগামী ৫-৬ দিন পর খালেদা জিয়ার তৃতীয় দফায় কোভিড টেস্টের ফলাফল ‘নেগেটিভ’ আসবে এবং তিনি করোনামুক্ত হবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন ডা. এফ এম সিদ্দিকী