চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
রাজধানী ঢাকার আইইডিসিআর-এর আইসোলেশান সেন্টার থেকে পলাতক এক করোনা রোগীকে আটক করা হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। রবিবার (৩০ মে) দুপুরে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা তাকে ধরে স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে। পরে আটক করোনা রোগীকে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালের আইসোলেশান সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।
সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের বাবুই ডাইং বাথান বাড়ি এলাকা থেকে ওই করোনা রোগীকে আটক করা হয়। ঢাকা থেকে করোনা রোগী পালিয়ে আসা ও আটক করে হাসপাতালের করেনা ডেডিকেটেড ওয়ার্ডে ভর্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন। তিনি জানান, পলাতক থাকা করোনা রোগী ঝিলিম ইউনিয়নের হোসেন ডাইং এলাকার বাসিন্দা শাহ আলম (২৮)।
সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী মুঠোফোনে জানান, গোপন সংবাদের ভিক্তিতে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা অভিযান পরিচালনা করে শাহ আলমকে আটক করে। পলাতক করোনা রোগীকে জঙ্গলের পরিত্যক্ত ছাউনির নিচ থেকে আটক করা হয়। পরে আটককৃত পলাতক রোগীকে স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে সোপর্দ করে।
তিনি আরও জানান, ওই ব্যক্তির গত বুধবার (২৬ মে) নমুনা পরীক্ষা করে করোনা সনাক্ত হয়। সে ঢাকার সিভিল সার্জনের অধীনে আইইডিসিআর-এর আইসোলশান সেন্টারে ভর্তি ছিল। সেখান থেকে সবার চোখ আড়াল করে পালিয়ে আসে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। তার শরীরে করোনার কোন লক্ষন ছিলোনা। আটককৃত পলাতক করোনা রোগী বর্তমানে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালের আইসোলেশান সেন্টারে ভর্তি রয়েছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে রবিবার (২৯ মে) পর্যন্ত করোনা সনাক্ত হয়েছে ১৭২৭ জনের। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৫৭৬ জন। এখন পর্যন্ত জেলায় ৩২ জন করোনা রোগী নিহত হয়েছেন। গত ২৪ ঘন্টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা সংক্রমণের হার ৫৭ শতাংশ।