সংযোগ ডেস্ক : এবার যুক্তরাজ্যে নতুন ধরণের করোনাভাইরাস দেখা দিয়েছে। ভারতীয় ‘ডেল্টা’ ধরনের সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় যুক্তরাজ্য করোনা প্রতিরোধে চলমান অধিকাংশ বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে।
সোমবার সংবাদ সম্মেলনে আরো একমাস বিধিনিষেধ বহাল রাখার ঘোষণা দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ।
জনসন বলেন, তিনি যদি কিছুই না করেন তাহলে আরও হাজার হাজার লোক মারা পড়তে পারে। কারণ, করোনার ‘ডেল্টা’ ধরন খুবই মারাত্মক।
সরকারের ফেব্রুয়ারি মাসের চূড়ান্ত পরিকল্পনায় আগামী ২১ জুন থেকে অধিকাংশ সামাজিক বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল।
বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হলে পাব, রেস্টুরেন্ট, নাইটক্লাবসহ অন্যান্য বিনোদন কেন্দ্রগুলো পুনরায় খুলে যেতো। এখন তা পিছিয়ে ১৯ জুলাই করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে জনসন বলেন, ‘আমি মনে করি, আরও কিছু সময় অপেক্ষা করা বুদ্ধিমানের কাজ। আমার বিশ্বাস, আমাদের আর চার সপ্তাহের বেশি অপেক্ষা করতে হবে না।’
ভারতে প্রথম দেখা দেওয়া করোনার ‘ডেল্টা’ ধরন সম্প্রতি যুক্তরাজ্যেও দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে।
ব্রিটিশ স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, এটি তাদের দেশে প্রথম দেখা দেওয়া ‘আলফা’ ধরনের চেয়েও ৬০ শতাংশ বেশি সংক্রামক।
ব্রিটেনের বিরোধী লেবার পার্টি বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ায় সরকারের বিলম্বের সমালোচনা করে বলেছে, ভারত থেকে আসা যাত্রীদের ঠেকাতে সীমান্ত বন্ধে খুবই দেরী করা হয়েছে।
যুক্তরাজ্যে সোমবার নতুন করে ৭ হাজার ৭৪২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ সময় তিনজন মারা গেছে।