সংবাদ সংযোগ ডেস্ক : আনুষ্ঠানিকভাবে বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের আগেই আফগানিস্তানের ৪০ জেলা দখলে নিয়েছে তালেবান। দেশটির ৬টি প্রদেশে নিজেদের অস্তিত্বের জানান দিচ্ছেন তারা। এমন পরিস্থিতিতে আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে রদবদল করেছেন প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি।
প্রায় ২০ বছরের অভিযান শেষে আফগানিস্তান ছাড়ছে মার্কিন ও সামরিক জোট ন্যাটোর সেনারা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ঘোষণা অনুযায়ী, ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশটি থেকে সব সেনা সরানো হবে।
এদিকে আফগানিস্তানের বিভিন্ন প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সরকারি বাহিনীর বিমান ও স্থল হামলায় অন্তত ২৫৮ জন তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ১৫৬ জন। গত রোববার আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এতে বলা হয়েছে, সরকারি বাহিনী ১৩টি প্রদেশে বিমান ও স্থলপথে এই অভিযান পরিচালনা করে। খবর এএনআইয়ের।
আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, তালেবানদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালিত হয় নানগাহার, লাগমান, পাকটিয়া, জাবুল, হিরাত, ফারাহ, ঘোর, ফারাব, বলখি, জ্ওাযান, হেলমান, টেকহার এবং বাগলাহান প্রদেশে।
রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, সরকারি বাহিনী ফরিয়ায় শিরিন তাগাব জেলা এবং বাঘলানের দহনা-ই-ঘোরি থেকে নিরাপত্তা বাহিনী সরিয়ে নিয়েছে। অন্যদিকে, ময়দান ওয়ার্ডাং প্রদেশের তালেবান বাহিনী দখলে নিয়েছে।
গত ১ মে আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য ন্যাটো সেনাদের সরকারিভাবে প্রত্যাহারের পর থেকে তালেবানরা প্রাদেশিক রাজধানী, জেলা, ঘাঁটি এবং চেকপোস্টে হামলা বাড়াতে থাকে। এই কারণে গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে প্রায় ১০ হাজার আফগান বাস্তুচ্যুত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চুক্তি মোতাবেক আফগানিস্তান থেকে এ বছরের ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেনা প্রত্যাহারের কাজ শেষ হবে। সূত্র : এএনআই