সংবাদ সংযোগ ডেস্ক : কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টারে গুলিবর্ষণের ঘটনায় হামলাকারীকে ধরতে বড় অংকের পুরস্কার ঘোষণা করেছে দেশটি সরকার। প্রেসিডেন্ট আইভ্যান দুকেকে বহনকারী হেলিকপ্টারে হামলাকারীর বিষয়ে যেকোনো তথ্য দিলেই মিলবে ৭ লাখ ৯৬ হাজার মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় পৌনে ৭ কোটি (৬ কোটি ৭৮ লাখ ৫৫ হাজার) টাকা।
শুক্রবার হেলিকপ্টারে করে ভেনেজুয়েলার সীমান্তবর্তী নর্তে দ্য স্যানটানডের প্রদেশের কুকুতা নামক এলাকায় যান কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট আইভ্যান দুকে। এসময় তার সঙ্গে প্রতিরক্ষামন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সংশ্লিষ্ট প্রদেশের গভর্নরও ছিলেন। সেখানেই অবতরণের সময় হেলিকপ্টারটিতে গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে।
আইভ্যান দুকের একজন মুখপাত্র শনিবার জানিয়েছিলেন, প্রেসিডেন্টসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা হামলা ও গুলিবর্ষণের সময় হেলিকপ্টারে থাকলেও কেউ আহত হননি। অপরদিকে ঘটনার পরপরই প্রেসিডেন্ট দুকে এটাকে কাপুরুষোচিত হামলা আখ্যায়িত করে নিন্দা জানান। সেসময় তিনি বলেন, সহিংসতা অথবা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে তিনি মোটেই ভীত নন।
হামলার পর সংবাদমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টারটির প্রপেলার এবং লেজের অংশে বুলেটের চিহ্ন দেখা যায়। এ ঘটনায় জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্র নিন্দা জানায়।
শনিবার হেলিকপ্টারে হামলাকারীর বিষয়ে যেকোনো তথ্য দিয়ে সহায়তাকারীকে প্রায় আট লাখ ডলার পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন কলম্বিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী দিয়াগো মোলানো। হামলার সময় হেলিকপ্টারটিতে তিনিও ছিলেন।
এর আগে দেশটির পুলিশ জানায়, ভেনেজুয়েলার সীমান্তবর্তী নর্তে দ্য স্যানটানডের প্রদেশের কুকুতা নামক এলাকায় হামলার পার্শ্ববর্তী স্থান থেকে দু’টি রাইফেল উদ্ধার করেছে তারা। এর একটি একে-৪৭ রাইফেল এবং অন্যটি ৭.৬২ ক্যালিবার রাইফেল। প্রেসিডেন্টকে বহনকারী হেলিকপ্টারে হামলার কাজে এই দু’টি রাইফেল ব্যবহার করা হয় বলে জানানো হয়।
কলম্বিয়ার পুলিশ বিভাগের প্রধান জেনারেল জর্জ ভার্গাস জানিয়েছেন, উদ্ধারকৃত ৭.৬২ ক্যালিবার রাইফেলে ‘ভেনেজুয়েলার সশস্ত্র বাহিনীর চিহ্ন’ পাওয়া গেছে। টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় তিনি আরও বলেন, ‘আমরা অপরাধীদের খুঁজছি। তাদেরকে আটক না করা পর্যন্ত আমরা চেষ্টা অব্যাহত রাখবো।’ সূত্র: বিবিসি