আহ্বান দেশে ও বিদেশে নির্যাতনের শিকার গৃহশ্রমিকদের সুরক্ষা এবং তাদের অধিকারও মর্যাদাপ্রতিষ্ঠায় গৃহশ্রমিকদের শোভন কাজ সংμান্ত আইএলও কনভেনশন ১৮৯ অনুসমর্থনের আহ্বানজানিয়েছেন বক্তারা। বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজ-বিল্স এর উদে ̈াগে ও আন্তর্জাতিক শ্রম সং ̄’া-আইএলও’র সহযোগিতায় আজ ২৯ জুন ২০২১(মঙ্গলবার)বিল্স সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত “গৃহশ্রমিকদের জন ̈ শোভন কাজ সংμান্ত আইএলওকনভেনশন-১৮৯ অনুসমর্থনে সুপারিশমালা প্রণয়ন ও ভবিষ ̈ৎ করণীয়” শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায়বক্তারা এ আহ্বান জানান।অনুষ্ঠানে শ্রম ও কর্মসং ̄’ান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় ̄’ায়ী কমিটির সদস ̈ শামসুন্নাহার ভূঁইয়া, এমপি বলেন, বর্তমানে শ্রম বাজারে নারী শ্রমিকের সংখ ̈া দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এদের অনেকে গৃহশ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন। তাদের জন ̈ নীতিমালা বা আইএলও কনভেনশন অনু ̄^াক্ষর করলেই হবে না,তাদেরকে শ্রম আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। সকল পক্ষআন্তরিক হলেই এটি সম্ভব। এসময় তিনি বলেন, প্রবাসী নারী শ্রমিকরা কি পরিমান রেমিট ̈ান্স দেশে পাঠায় এবং আমরা তাদের জন ̈ কি করছি সে ̧লো খতিয়ে দেখা দরকার। তিনি শ্রমিক পাঠানো এবং গ্রহণকারী দেশের জন ̈ একটি নীতিমালা প্রণয়নের উপর ̧রুত্বারোপ করেন। শ্রমিক নিরাপত্তা ফোরামের আহ্বায়ক ড. হামিদা হোসেন বলেন, গৃহশ্রমিকদের অভিযোগ জানানোর বিষয়ে একটি সুনির্দিষ্ট প্রμিয়া থাকা দরকার,যাতে তারা নির্যাতনের শিকার হলে অভিযোগ জানাতে পারেন। তিনি আইএলও কনভেনশন ১৮৯ অনুসাক্ষরে বেশি বেশি প্রচারণার উপর ̧রুত্বারোপ করেন। প্রবাসী কল ̈াণ ও বৈদেশিক কর্মসং ̄’ান মন্ত্রণালয়ের উপসচিব শেখ মোঃ রেফাত আলী বলেন, আইএলও কনভেনশন অনুসমর্থনের চেয়েও বেশি প্রয়োজন হচ্ছে গৃহশ্রমিকদেরঅধিকার প্রতিষ্ঠা করা। এসময় তিনি গৃহশ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রবাসী কল ̈াণ ও বৈদেশিক কর্মসং ̄’ান মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন উদে ̈াগের কথা তুলে ধরেন। কোভিড-১৯ এর কারনে লক্ষ লক্ষ গৃহশ্রমিক তাদের কাজ হারিয়েছে উল্লেখ করে ̄^াগত বক্তবে ̈ বিল্স মহাসচিব ও নির্বাহী পরিচালক নজরুল ইসলাম খান বলেন, গৃহশ্রমিকদের নিয়োগ পত্র নেই, নির্দিষ্ট কর্মঘন্টা নেই, নির্দিষ্ট মজুরি নেই, ফলে প্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমিকদের মত তারা কোন সুযোগ সুবিধা পাননা। এ ̧লো বিবেচনা করে গৃহশ্রমিকদের শোভন কাজ সম্পর্কিত আইএলও কনভেনশন-১৮৯ অনুসমর্থন করা প্রয়োজন বলে তিনি অভিমত ব ̈ক্ত করেন। সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন বলেন, গৃহশ্রমিকদের কাজের ̄^ীক…তি না দিলে নারীদের কাজের ̄^ীক…তি আসবে না। তাদের কাজের ̄^ীক…তি দিলে সামাজিক মূল ̈বোধতৈরি হবে, আর সে সামাজিক মূল ̈বোধ তৈরি করতে এই কনভেনশনটি অনুসমর্থন করা দরকার। তিনি গৃহশ্রমিকদের প্রশিক্ষণের জন ̈ প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট গঠনের আহ্বান জানান। সভাপতির বক্তবে ̈ বিল্স চেয়ারম ̈ান মোঃ হাবিবুর রহমান সিরাজ বলেন, আইএলও কনভেনশন-১৮৯ যে সম্মেলনে গৃহিত হয় সেখানে সভাপতিত্ব করে বাংলাদেশ। যেহেতু এ কনভেনশনের পক্ষে বাংলাদেশ ভোট দিয়েছে সেহেতু এটি অনু ̄^াক্ষর করা জরুরি। বিল্স নির্বাহী পরিষদ সদস ̈ শাকিল আকতার চৌধুরীরসঞ্চালনায় সভায় আরো উপি ̄’ত ছিলেন জাতীয় শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর কুতুব আলম মান্নান, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন সভাপতি কামরূল আহসান, এনসিসিডব্লিউই সদস ̈ সচিব নইমুল আহসান জুয়েল, গৃহশ্রমিক অধিকার প্রতিষ্ঠা নেটওয়ার্কের ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী আবুল হোসাইন, জনশক্তি কর্মসং ̄’ান ও প্রশিক্ষণ বু ̈রো (বিএমইটি) উধ্বতন পরিসংখ ̈ান কর্মকর্তা মাসুদ রানা, আন্তর্জাতিক শ্রম সং ̄’ার চাইল্ড লেবার রিজিওন ̈াল প্রজেক্টের ন ̈াশনাল প্রজেক্ট কোঅর্ডিনেটর সৈয়দা মুনিরা সুলতানা, বিল্স পরিচালক নাজমা ইয়াসমীন প্রমুখ।