ষ্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আগামী সোমবার (২২ নভেম্বর) ঢাকাসহ সারাদেশে সমাবেশের ডাক দিয়েছে দলটি। আজ শনিবার (২০ নভেম্বর) রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি এবং বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে গণঅনশন শেষে এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
গণঅনশনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকার কর্মসূচি ও দেশের মহানগরগুলোতে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এ কর্মসূচির মাধ্যমে খালেদা জিয়ার মুক্তি না হলে পরবর্তী সময় আরও বড় কর্মসূচি দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।অনশনে বিএনপির ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু বলেন, শেখ হাসিনার সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরাতে না পারলে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি মিলবে না। তার চিকিৎসাও হবে না। তাই লাগাতার কর্মসূচি দিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নামতে হবে। সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরাতে হবে। আমরা সব ধরণের কর্মসূচি বাস্তবায়নে রাজপথে থাকবো।
জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বাবুল বলেন, কর্মসূচি দিয়ে ঘরে বসে থাকা যাবে না। মাঠে থাকতে হবে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে না নামতে পারলে সরকারের কাছ থেকে দাবি আদায় করা যাবে না। চেয়ারপারসনও মুক্তি পাবেন না। লাগাতার কর্মসূচি দিন, আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি মাঠে থাকবো। জীবনের বিনিময় হলেও চেয়ারপারসনের মুক্তির আন্দোলন তরান্বিত করবো।
বিকাল চারটা পর্যন্ত চলা গণঅনশন কর্মসূচি থেকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করবেন।

Share Button