• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৩৮ অপরাহ্ন

শুরুতেই শক্ত প্রতিপক্ষের সামনে কৃষ্ণারা

আল ইসলাম কায়েদ
আপডেটঃ : সোমবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

থাইল্যান্ডের চনবুড়িতে শুরু হয়েছে এএফসি অনুর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের চুড়ান্ত পর্বের লড়াই। গতকাল উদ্বোধনী দিন চনবুড়ির আইপিই স্টেডিয়ামে ‘এ’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে চীন মোকাবেলা করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার। একই দিন আরেক ভেন্যূ চনবুড়ি স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক থাইল্যান্ড খেলেছে লাওসের বিপক্ষে। কাল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন হলেও আজ ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ মোকাবেলা করবে অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন উত্তর কোরিয়াকে। চনবুড়ি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল চারটায় শুরু হবে ম্যাচটি। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের মহারণ শুরু আজ। প্রথম ম্যাচেই শক্ত প্রতিপক্ষ। শক্তিশালী উত্তর কোরিয়ার বিপক্ষে নির্ভয়, নির্ভার ও উদ্যাম প্রাণশক্তি দিয়েই লড়বে বাংলাদেশের মেয়েরা। প্রথম ম্যাচে শক্ত প্রতিপক্ষ পেয়ে কিন্তু ভয়ে নেই কৃষ্ণা রাণী বাহিনী। তারা ভয়কে জয় করেই এগিয়ে যেতে চায়। ম্যাচের আগে গতকাল এমনটাই বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকার। তার কথা, ‘আমরা সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করব। দেশবাসীর কাছে দোয়া চাইছি। ওদের (উত্তর কোরিয়া) সঙ্গে সমান তালে খেলার চেষ্টা করব। ওরা রানিং করতে পারলে আমরাও পারি। আমাদের স্বপ্ন ভালো কিছু করে দেখানো।’ দলের তারকা ফুটবলার মৌসুমি বলেন,‘উত্তর কোরিয়ার বিপক্ষে খেলা মানে বিশ্বকাপ খেলা। আমরা এতদিন টার্ফের মাঠে করেছি অনুশীলন। থাইল্যান্ডে এসে অনেক দিন পর ঘাসের মাঠে অনুশীলন করলাম। সকালে একটু কষ্ট হয়েছিল আবহাওয়ায়। বিকালে স্বাভাবিক ছিলাম। টুর্নামেন্টে ভালো কিছু করে দেখাতে চাই আমরা। মাঠে আমার পক্ষে যতটুকু দেয়া সম্ভব ততটুকু দেব। হারি জিতি বড় কথা না ভালো খেলতে হবে আমাদের।’
বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘বাংলাদেশের সকল ফুটবলপ্রেমীদের জন্যই উত্তেজনার দিন কাল (আজ)। বিশ্বকাপ খেলার মতোই অনুভূতি। ভালো কিছু উপহার দেয়ার জন্য আগ্রহী আমরা। যদিও আমাদের প্রস্তুতি এক বছরের। খেলতে পারব এবং খেলব এজন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘জয়, হার কিংবা ড্র, নির্দিষ্ট করে কিছু বলবো না। এক বছরের অনুশীলনে কতটা উন্নতী হয়েছে মেয়েদের সেটা এখন দেখানোর সময় এসেছে। তবে বাজে কিছু হতেও পারে। এটা মেনে নিতে হবে। উত্তর কোরিয়ার খেলোয়াড়রা শারীরিকভাবে অনেক শক্তিশালী। এমনকি টেকনিক্যালি, ফিজিক্যালি সব দিক দিয়ে এগিয়ে তারা। তারপরও আমরা চেষ্টা করবো সবটুকু দিয়ে খেলতে।’
অন্যদিকে প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ সম্পর্কে তেমন কোন ধারনাই নেই উত্তর কোরিয়ার কোচ সং সাং গৌনের। তিনি বলেন, ‘আগের দিন সংবাদ সম্মেলনেই বলেছি বাংলাদেশ সম্পর্কে তেমন ধারনা নেই আমাদের। ফলে তারা মাঠে কেমন খেলতে পারে সঠিক প্রত্যাশা বা অনুমান করা যাচ্ছে না। বাংলাদেশ এই ম্যাচ থেকে পয়েন্ট নিলে সেটা অঘটনই হবে। একই হোটেলে থাকলেও ভাষাগত সমস্যার কারণে বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড় বা কোচদের সঙ্গে তেমন কথা হয় না। আমার দলের খেলোয়াড়রা সুস্থ এবং লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত আছে।’
টুর্নামেন্টে এশিয়ার সেরা আট দেশ দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলছে। ‘এ’ গ্রুপের দলগুলো হলো- স্বাগতিক থাইল্যান্ড, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া ও লাওস। ‘বি’ গ্রুপে খেলছে- উত্তর কোরিয়া, জাপান, অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশ। ১৪ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ম্যাচে লাল-সবুজদের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী জাপান। এবং ১৭ সেপ্টেম্বর ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে আরেক শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৬ নারী দল। বাংলাদেশের গ্রুপে থাকা অন্য তিন দলের মধ্যে উত্তর কোরিয়া অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের দুইবারের চ্যাম্পিয়ন। জাপান একবারের সেরা। আর অস্ট্রেলিয়া মেয়েদের ফুটবলের র‌্যাঙ্কিংয়ে এশিয়ায় শীর্ষে। আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর শেষ হবে নারী ফুটবলে এশিয়ার সেরা আট দলের লড়াই। চ্যাম্পিয়ন, রানার্সআপ ও তৃতীয়স্থান অর্জনকারী দলের ভাগ্যে জুটবে আগামী বছর অনুষ্ঠিতব্য ফিফা অনূর্ধ্ব-১৭ নারী বিশ্বকাপের টিকিট।

Share Button


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

You cannot copy content of this page

You cannot copy content of this page