• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩৬ অপরাহ্ন

মঞ্চাঙ্গনে উৎসবমুখর ঈদ আয়োজন

আল ইসলাম কায়েদ
আপডেটঃ : বৃহস্পতিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

প্রথমবারের মতো ঈদ আয়োজনে মঞ্চাঙ্গনে সৃষ্টি হয়েছে এক অভিনব ইতিহাস। সাধারণত ঈদের আগে ও পরে লম্বা সময় ধরে সবার মতো করে ঈদের ছুটি উপভোগ করে ঢাকার মঞ্চগুলো। তবে এবারই তার চিত্র ছিল সম্পূর্ণ বিপরীত। ঈদ আনন্দ যেমন চাঁদ রাত বা ঈদের আগের দিন থেকে বয়ে নিয়ে আসে ঠিক তেমনিভাবে ঈদের চাঁদটি যেন নতুনভাবে আর্বিভূত হল ঢাকার মঞ্চে। কারণ এই প্রথম ঈদের আগের দিন থেকে পরবর্তী নয় দিন ঢাকার মঞ্চে ছিল এক উৎসবমুখর পরিবেশ। ১ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে ছিল নাটবাঙলা নাট্যদলের উৎসব। উৎসব বলতে আমরা সাধারণত যেমনটা মনে করি, এই উৎসব ছিল তার সম্পূর্ণ ভিন্ন। বিভিন্ন দলের বিভিন্ন নাটক নিয়ে মূলত উৎসব হয়ে থাকলেও ব্যতিক্রম চিত্র দেখা গেছে এই নাটবাঙলা উৎসবে। একটি নাটক ‘রিজওয়ান’ নিয়ে শুরু হয় এ উৎসব। ঈদের আগে একটি মঞ্চায়ন দিয়ে শুরু হলেও পরবর্তী নয় দিন প্রতিদিন দুটি করে মোট ১৯টি মঞ্চায়ন হয় এই নাটকটির। আমেরিকা প্রবাসী কাশ্মীরি বংশোদ্ভূত কবি আগা শহীদ আলীর কাব্যগ্রন্থ ‘দ্য কান্ট্রি উইদাউট অ্যা পোস্ট অফিস’ অবলম্বনে ভারতের অভিষেক মজুমদার রচিত বিয়োগান্ত নাটক রিজওয়ান। নাটকটি ইংরেজি ভাষা থেকে বাংলা ভাষায় অনুবাদ ঋদ্ধিবেশ ভট্টাচার্য্য। পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদ।

রিজওয়ান ও ফাতিমা নামের দুই ভাই-বোনের স্মৃতি-স্বপ্ন, মিলন-বিচ্ছেদের গল্প নিয়ে নাটকটি তৈরি হয়েছে। এতে উঠে এসেছে ধর্মান্ধতায় ছিন্নভিন্ন এক ভূখণ্ডের কথা, সেখানকার বিপর্যস্ত মানবতার কথা, নারী ও শিশুদের কথা। নাটকে রিজওয়ান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক তিতাস জিয়া। ফাতিমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন মহসিনা আক্তার এবং অন্যান্য চরিত্রে এনামতারা সাকী, মিতালী দাস, সোহেল রানা, সুশান্ত কুমার সরকার, সাজিদুর রহমান, আবদুর রহিম খানসহ বিভিন্ন নাট্যদলের ১৫ জন অভিনয় শিল্পী। রিজওয়ান লাইট এবং সেট পরিকল্পনায় সৈয়দ জামিল আহমেদ ও পোশাক পরিকল্পনায় ছিলেন নায়লা আজাদ নূপুর।

মঞ্চাঙ্গনে ঈদকে কেন্দ্র করে এমন ভিন্ন আয়োজনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন চায়ের আড্ডায়ও সবার মাঝে ছিল শুধু রিজওয়ান। সবকটি দিন প্রতিটি মঞ্চায়নে পরীক্ষণ থিয়েটার হলে যেন ছিল দর্শকের জোয়ার। ঈদে এমন আয়োজনে শিল্পকলার চিত্র যেন পুরো পাল্টে গেছে। প্রতিনিয়ত লম্বা লাইনের সারিতে দাঁড়িয়ে অনেক দর্শক রিজওয়ান দেখতে গিয়ে টিকিট না পেয়ে ফেরত গেছেন। আবার অনেক দর্শক একাধিকবার দেখেছেন রিজওয়ান।

ঈদকে কেন্দ্র করে এমন আয়োজনে সবার মধ্যে এক উৎসবমুখর আমেজ তৈরি হয়েছে বলে জানান বিভিন্ন দলের নাট্যকর্মীরা। ঈদের ছুটিতে মঞ্চে এমন আয়োজন সত্যি ঢাকার মঞ্চের জন্য এক নতুন প্রাপ্তি। মঞ্চে ঈদ আয়োজনে এমন প্রাপ্তি রিজওয়ান দিয়ে শুরু হলেও এই পথচলা যেন প্রতিটি ঈদকে কেন্দ্র করেই চলমান থাকে সেই প্রত্যাশাই করেছেন মঞ্চ নাট্যপ্রেমীরা।

Share Button


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

You cannot copy content of this page

You cannot copy content of this page